মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর, রোমাঞ্চকর, চোখ ধাঁধানো ২০ রাস্তা (দেখুন ছবিসহ)

বিশ্বের নানান স্থানে ও কোণে ছড়িয়ে আছে হাজারো পথ ও রাস্তাঘাট। আমরা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ভ্রমণ করি বিভিন্ন পথ অতিক্রম করে। নৌপথ, স্থলপথ, আকাশ পথ এই তিন পথে আমরা চলাচল করি। যাতায়াতের জন্যও বিভিন্ন জায়গার বিভিন্ন রাস্তা ব্যবহার করি আমরা। আর চলার পথটি যদি হয় চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্যে ভরপুর তাহলে সফর হয় আরো সুন্দর, মনোরম এবং আনন্দদায়ক।

দুনিয়া জুড়ে এমন কিছু রাস্তা ও পথ আছে যা দিয়ে সফর করাও অনেক ভ্যাগের ব্যাপার বটে। এসব রাস্তাগুলো খুব নিখুঁতভাবে বানানো হয়েছে। এমন সুন্দর রাস্তাগুলোর নাম জেনে নিন –

1-14

১। মিল্লাও ভিয়াদাক্ট, ফ্রান্সঃ

ফ্রান্স এ অবস্থিত এই ব্রিজটির দৈর্ঘ্য ২,৪০০ মিটার। এটি ৩৪৩ মিটার উঁচুতে অবস্থিত। সেখানে ঘণ্টায় ২০০ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হয়। তাই গাড়ি নিয়ে ভ্রমণ কালে অবশ্যই জানালা বন্ধ রাখুন। নিয়ন্ত্রণ সামলে নিয়ে উপভোগ করুন সুন্দর এই রাস্তার মনোরম দৃশ্য।

2-11

২। টিয়ান্মেন মাউনটেন রোড, চায়নাঃ

চায়নার টিয়ান্মেন মাউনটেন এর জাতীয় পার্ক এর পাশে ঘেঁষে গিয়েছে এই রাস্তা ১১ কিলোমিটার দীর্ঘ এ পথ বেয়ে আপনি টিয়ান্মেন পাহাড়ে পৌঁছে যাবেন।

3-10

৩। কল ডি টুরিনি, ফ্রান্সঃ

ফ্রান্সের দক্ষিণ অংশে আল্পসের একটি মাউন্টেইন পাসে অবস্থিত এই রাস্তা। ওয়ার্ল্ড র‍্যালি চ্যাম্পিয়নশিপের মন্টে কার্লো ২০ মেইল র‍্যালি স্টেইজের একটি অংশ এই রাস্তা। ড্রাইভারদের জন্যও এটি অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং, একই সঙ্গে এর চারপাশের দৃশ্যও খুব সুন্দর।

4-6 (1)

৪। স্টেলভিও পাস, ইতালিঃ

পূর্ব আল্পস থেকে ভাল্টেরিনার সঙ্গে মেরানো ও আডিজ ভ্যালির সংযোগ তৈরি করেছে স্টেলভিও পাস। আল্পসের তৃতীয় বৃহৎ পেইভ করা মাউন্টেইন রোড এটি। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এর উচ্চতা ২ হাজার সাতশ ৫৭ মিটার। হেয়ারপিন স্টিপ, অর্থাৎ চুলের কাঁটার মতো তীক্ষ্ণ বাঁকের জন্য বিখ্যাত স্টেলভিও পাস।

c Paolo Rossetti

৫। জেবেল হাফিট মাউন্টেইন রোড, সংযুক্ত আরব আমিরাতঃ

৬.৩ মেইল লম্বা এই রাস্তাটির চারপাশের দৃশ্য মনোমুগ্ধকর। পাহাড়ের মধ্যে দিয়ে তৈরি হয়েছে এই রাস্তা। নিচে র‍য়েছে মরুভূমি। রাস্তাটি থেকে মরুভূমি দেখতে ভীষণ সুন্দর লাগে। জেবেল হাফিট মাউন্টেইন রোড রাতের বেলায় অসম্ভব সুন্দর দেখায়।

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

৬। ট্রান্সফাগারাসান, রোমানিয়াঃ

রুট ট্রান্সফাগারাসান রোমানিয়ায় অবস্থিত ১০০ কিলোমিটার দীর্ঘ একটি রাস্তা। এটি রোমানিয়ার সব থেকে উচ্চতর ও লম্বা রাস্তা। এটি ফাগারাস পাহাড় এর উপর দিয়ে তৈরি। তাই পাহাড়ের নাম অনুযায়ী এর নাম রাখা হয়।

রোমানিয়ায় অবস্থিত এই রাস্তাটি ১৯৭০ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে নির্মিত হয়েছিল। ঐতিহাসিক স্থান ট্রান্সিলভানিয়া ও ওয়ালাকিয়ার সংযোগ তৈরি করেছে রাস্তাটি। পাহাড়ের মধ্যে দিয়ে এঁকেবেঁকে এগিয়ে গেছে ট্রান্সফাগারাসান। রাস্তা দিয়ে গাড়ি চালানোর সময় দু’পাশের পাহাড় দেখতে দারুণ লাগে। শীতকালে রাস্তার উপরে বরফের আস্তরণ পড়ে যায় বলে শুধু গ্রীষ্মকালেই এ রাস্তায় চলার সময়ের চমৎকার দৃশ্য উপভোগ করা সম্ভব।

7-2

৭। লস ক্যারাকোলস পাস, অ্যান্ডেসঃ

অ্যান্ড্রেয়াস পর্বতের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে গেছে লস ক্যারাকোলস পাস। আঁকাবাঁকা এ রাস্তাটিও হেয়ারপিন স্টিপের জন্যও ড্রাইভারদের কাছে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং। রাস্তাটির দুপাশের দৃশ্যও মনোমুগ্ধকর।

Italy, 2014

৮। সান বার্নারডিনো পাস, সুইজারল্যান্ডঃ

এই পাসটিও পাহাড়ের মধ্যে দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। হেয়ারপিন স্টিপ এই পাসের অন্যতম আকর্ষণ। এছাড়া এখানকার প্রাকৃতিক দৃশ্যও হৃদয়কাড়া।

9-2

৯। গুওলিয়াং টানেল রোড, চীনঃ

চীনের হুনান রাজ্যের তাইহাং পর্বতের মধ্যে দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই রাস্তা। মাত্র কয়েকজন স্থানীয় গ্রামবাসী মিলে এটি তৈরি করেছেন। চীনের পর্যটন আকর্ষণের অন্যতম এই টানেল রোড। তবে এখানকার দৃশ্য যেমন অসাধারণ, তেমনি এটি বিশ্বের অন্যতম সবচেয়ে ভয়ংকর রাস্তাও বটে।

10-2

১০। ওবেরাল্প পাস, সুইজারল্যান্ডঃ

ওবেরাল্প পাসের প্রাকৃতিক দৃশ্য যে কারো নজর কাড়বে। ইউরোপের ড্রাইভারদের কাছে এই রাস্তাটি অনেক জনপ্রিয়। তবে শুধু গ্রীষ্মকালেই এটি খুলে দেওয়া হয়। সেন্ট্রাল সুইজারল্যান্ড এবং গ্রাউবান্ডেন ওবারল্যান্ডের মধ্যের যোগাযোগ ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ওবেরাল্প পাস।

11-4
১১। আটলান্টিক রোড, নরওয়েঃ

আটলান্টিক রোডটি নরওয়ে তে অবস্থিত। এটি উপকূলীয় এলাকার উত্তর অংশে অবস্থিত। এর মোট দৈর্ঘ্য ৮,২৭৪ কিলোমিটার। আটলান্টিক রোডও চারপাশের চমৎকার দৃশ্যের জন্য জনপ্রিয়। এটি যে কত সুন্দর তা নিজের চোখে না দেখলে বোঝা সম্ভব না। রাস্তাটি হঠাৎ করেই অনেকটা উঁচুতে উঠে গেছে, আবার কোথাও নেমে গেছে অনেক নিচে। এজন্য এ রাস্তায় গাড়ি চালানো অত্যন্ত উপভোগ্য। মোল্ড ও ক্রিস্টিয়ানসান্ড-এর মধ্যের যোগাযোগ ব্যবস্থা এই রাস্তা। এটিকে ভোটের মাধ্যমে ‘নরওয়েজিয়ান কন্সট্রাকশন অব দ্যা সেঞ্চুরি’ নির্বাচিত করা হয়েছিল।

12-1

১২। গ্রোসগ্লোকনার রোড, আস্ট্রিইয়াঃ

এই রাস্তাটি আস্ট্রিয়াতে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ২,৫০৫ মিটার। কারিন্থিয়া ও সালজবারগ এর মাঝে রয়েছে। পর্যটকেরা এখানে গাড়ি পার্ক করে রাস্তায় দাড়িয়ে এর মনোরম দৃশ্য উপভোগ করে।

13-1

১৩। রুটা ফরটি হাইওয়ে, আর্জেন্টিনাঃ

এই পথটি আর্জেন্টিনার উত্তর থেকে দক্ষিণ এ অবস্থিত। এটি আর্জেন্টিনার সব থেকে লম্বা রাস্তা। এটি বিভিন্ন স্থানের সাথে সংযুক্ত। এটি সে দেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি রাস্তা। এই রাস্তাটি পাতাগনিয়া সমুদ্রতল থেকে শুরু হয়ে ৫,০০০ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত। এই পথের সাথে ২০টি জাতীয় উদ্যান, ১৮ টি প্রধান নদী এবং ২৭ টি পাহাড়ের সাথে সংযুক্ত।

14-1

১৪। রেড রক সিনিক রোড, যুক্তরাষ্ট্রঃ

সেডোনা’স রেড রক কান্ট্রির মধ্যে দিয়ে তৈরি হয়েছে রেড রক সিনিক রোড। এটিকে প্রায়ই দেয়াল ছাড়া জাদুঘর হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। রাস্তাটির পাশের লাল পাথরের পাহাড়ের অসাধারণ দৃশ্যের সঙ্গে আকাশের মেঘমালার খেলা দেখতে দারুণ লাগে।

15-1

১৫। ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট রুট, ক্যালিফোর্নিয়াঃ

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াতে এই রাস্তাটি অবস্থিত। ১৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রাস্তাটি প্রশান্ত মহাসাগর এর উপকূলে বিগ সুর পাহাড়ের উপর অবস্থিত। এই পথ দিয়ে চলাচলের সময় সাগরের অত্যাশ্চার্য দৃশ্য উপলব্ধি করা যায়।

16-1

১৬। চ্যাপমেন পিক রোড, দক্ষিণ আফ্রিকাঃ

চ্যাপমেন পিক রোড দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউন এ অবস্থিত।

17-1

১৭। কারাকরাম হাইওয়ে, পাকিস্তান ও চায়না সংযোগঃ

কারাকরাম হাইওয়ে পাকিস্তান ও চায়না এর মিলিত উদ্যোগে আর্মিদের দ্বারা ১৯৬৬ সাল থেকে ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত তৈরি করা হয়। এই পথটি চায়না এবং পাকিস্তানকে সংযুক্ত করে। এটি বিভিন্ন পাহাড় কেউ অতিক্রম করে। এর দৈর্ঘ্য প্রায় ৪,৬৯৩ মিটার।

18-1

১৮। রোড কম্বে লাভাল, ফ্রান্সঃ

এটি ফ্রান্স এ অবস্থিত। ২৫৩ মিটার থেকে ১,১৪৬ মিটার উচ্চতা বিশিষ্ট এই পথটি সমুদ্র তল ১,০১১ মিটার থেকে উঁচুতে অবস্থিত।

19-1

১৯। নর্থ ইয়ংগাস, বলিভিয়াঃ

এই রাস্তাকে বলা হয় “মৃত্যুর রাস্তা”!নর্থ ইয়ংগাস রাস্তাটি ৪৩ মাইল লম্বা এবং এটি লা পাজ এবং করইকো কে আন্দিজের বলিভিয়া প্রান্তের সাথে যুক্ত করেছে।দুনিয়ার সবচেয়ে বিপজ্জনক রাস্তা বলা হয় এটিকে ১৯৯৫ সাল থেকে।প্রথমেই ছবি দেখুন,এরপর চিন্তা করুন,বিপজ্জনক ড্রপ অফ, টাইট হেয়ারপিন,অত্যন্ত সংকীর্ণ প্যাসেজ এবং রাস্তাটি এক লেনের।পুরো রাস্তাটি পাহাড়ের গায়ে সরূ একটা রেখার মত।তার উপর কুয়াশা কিংবা বৃষ্টিতে রাস্তা দেখা যায় না ।কি অসম্ভব ভয়ংকর সুন্দর যেখানে কিনা প্রতি বছর ২০০-৩০০ মানুষ মারা যায় এখানে।

20

২০। কোলি হিলস, তামিল নাড়ু ইন্ডিয়াঃ

কোলি হিলস এর অবস্থান তামিলনাড়–তে। সৌন্দর্য এই রাস্তর কোনায় কোনায়। কিন্তু সুন্দরের মধ্যেই লুকিয়ে আছে বিপদ। শোনা যায়, এই রাস্তায় প্রায়ই এক সুন্দর মহিলার দেখা মেলে, যে তার রূপ দিয়ে সে আরোহীদের হত্যা করে থাকে। এছাড়া এই রাস্তায় রয়েছে ৭০ টি বাঁক।






মন্তব্য চালু নেই