মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সেরা রেস্তোরাঁ

বিশ্বের সেরা রেস্তোরাঁ, যেখানে রয়েছে রুচিশীল যত খাবার। বেলজিয়ামের শেফ পিটার গোসেন্সের রেস্তোরা। সারাবিশ্বের মানুষের কাছে এটি বিখ্যাত। ইন্টারনেট দুনিয়ায় ভোজন রসিকদের ভোটাভুটিতেও রেস্তোরাঁটি উঠে এসেছে বিশ্বে সবচেয়ে ভাল রেস্তোরার মর্যাদায়।

পিটার গোসেন্স নিজেও ভাবেননি তার জীবনে আসবে এমন সুনাম। তিনি একজন শেফ। রান্না করা তার নেশা। ২৫ বছর আগে বেলজিয়ামের দক্ষিণের শহর ঘেঁতেতে চালু করেন ছোট্ট এক রেস্ট্রুরেন্ট। নাম দেন ‌‘হফ ভ্যান ক্লেভে’।

সেই ছোট্ট রেস্তোরাঁই আজ মর্যাদা পেয়েছে তিন তারকার। সেটাকেও ছাপিয়ে তার অবস্থান শীর্ষে। ইন্টারনেটের খাবারের বিখ্যাত ওয়েবসাইট ডাব্লুউ-বি-পি-স্টার ডটকমের ভোটাভুটিতেও সর্বোচ্চ স্থান অর্জন।

পিটারগোসেন্স বলেন, আমি কখনোই ভাবিনি যে, এ পর্যায়ে আসতে পারব। আমার উদ্দেশ্য ছিল, যারা আমার এখানে আসবে, তারা যেন খেয়ে মজা পান। তাদের আনন্দই আমার প্রাপ্তি। তারাই আমাকে প্রেরণা দিয়েছে। আজকের এই পুরস্কার তাদের।

‘হফ ভ্যান ক্লেভে’র খাবার তৈরি হয় স্থানীয় বিভিন্ন খামারের সবজি দিয়ে। মাছ সংগ্রহ হয় বেলজিয়ামের উপকূল থেকে। গ্রোসেন্স সবসময়ই ভোজন রসিকদের স্থানীয় খাবার খেতে উৎসাহিত করেন। প্রায়ই তাকে দেখা যায় রান্না বিষয়ক প্রতিযোগিতার নির্বাচকের ভূমিকায়।

তিনি বলেন, নিজস্ব ধরণ থাকতে হবে একজন শেফের। এটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা নিজ দেশের ফসল দিয়ে খাদ্য তৈরি করি। আমি মনে করি, বিষয়টি আমাকে অন্যদের থেকে আলাদা করেছে






মন্তব্য চালু নেই