মেইন ম্যেনু

বিশ্ব ইজতেমায় আজ থেকে বিশেষ ট্রেন-বাস

বিশ্ব উজতেমা উপলক্ষে আজ শুক্রবার থেকে ট্রেন ও বিআরটিসি বাসের স্পেশাল সার্ভিস শুরু হচ্ছে। এ সার্ভিস ৮ জানুয়ারি থেকে শুরু করে মোনাজাতের পরে দিন ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রথম পর্বে এবং ১৫ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি আর বিআরটিসি আগামী ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত দ্বিতীয় পর্বে চলবে।

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লিদের যাতায়াত ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে রেল কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন (বিআরটিসি) এই উদ্যোগ নিয়েছে।

স্বাভাবিকের চেয়ে দেড় লাখ অতিরিক্ত যাত্রী বহন করতে ২৮টি স্পেশাল ট্রেন চালু এবং বিআরটিসি ২২৮টি স্পেশাল বাস সার্ভিস চালু করছে। ২৮টি ট্রেনের সঙ্গে ২০টি অতিরিক্ত কোচও সংযোগ দেয়া হবে।

নিরাপদে মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য অগ্রিম টিকেটধারী যাত্রীদের টঙ্গী স্টেশন থেকে ট্রেনে আরোহনের সুবিধার্থে ইজতেমার প্রথম দিন শুক্রবার ঢাকা-টঙ্গী-ঢাকা ২টি জুম্মা স্পেশাল। আখেরি মোনাজাতের আগের দুই দিন জামালপুর ও আখাউড়া থেকে ২টি করে ৪টি, আখেরি মোনাজাতের আগের দিন লাকসাম-টঙ্গী ১টি, আখেরি মোনাজাতের দিন ঢাকা-টঙ্গী ৭টি, টঙ্গী-ঢাকা ৭টি, টঙ্গী-লাকসাম ১টি, টঙ্গী-আখাউড়া ২টি, টঙ্গী-ময়মনসিংহ ৪টিসহ মোট ২১টি আখেরি মোনাজাত স্পেশাল রয়েছে।

রেলকর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, ৩৮টি মেইল এক্সপ্রেস কমিউটার ও লোকাল ট্রেনের টঙ্গী স্টেশনে আখেরি মোনাজাতের আগের ৫ দিন ঢাকা অভিমুখী সকল আন্তঃনগর ২৯টি ট্রেন ২ মিনিট করে বিরতি রাখা হয়েছে। আখেরি মোনাজাতের দিন ৫৮টি আন্তঃনগর ট্রেন ও আখেরি মোনাজাতের পরের দিন ১৫টি আন্তঃনগর ট্রেনে ২ মিনিট করে বিরতি রাখা হয়েছে।

এ উপলক্ষে ১০ ও ১৭ জানুয়ারি ৭২১/৭২২ মহানগর প্রভাতী ও গোধুলি, ১১ ও ১৮ জানুয়ারি ৭০৭/৭০৮ তিস্তা এক্সপ্রেস এবং ৮ ও ১৫ জানুয়ারি ৭০১/৭০২ সুর্বণ এক্সপ্রেস ট্রেনগুলোর সাপ্তাহিক বন্ধের দিন চলাচল করবে।

স্পেশাল ট্রেন পরিচালনার সুবিধার্থে আখেরি মোনাজাতের দিন সুবর্ণ এক্সপ্রেস, তিস্তা এক্সপ্রেস, কালনী এক্সপ্রেস, মহুয়া এক্সপ্রেস, তুরাগ এক্সপ্রেস, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ কমিউটার, ঢাকা-টঙ্গী কমিউটার, ঢাকা-জয়দেবপুর কমিউটার, ঢাকা-কুমিল্লা কমিউটার চলাচল বন্ধ থাকবে।

যাত্রীদের টিকেট সংগ্রহের সুবিধার্থে ঢাকা স্টেশনে ৭০টি ও টঙ্গী স্টেশনে ৫০টি অতিরিক্ত টিকেট কাউন্টার বৃদ্ধিসহ ভ্রাম্যমাণ টিকেট বিক্রেতা নিয়োগ, ইজতেমা চলাকালে ময়মনসিংহ, আখাউড়া হতে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত সার্বক্ষণিক রেলওয়ে ট্যাক পেট্রোলিংয়ের ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুর রহমান জানান, বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লিদের সুষ্ঠু যাতায়াত নিশ্চিত করতে বিশ্ব ইজতেমা শুরু হওয়ার তিন দিন আগে থেকে সব ট্রেনে অতিরিক্ত কোচ সংযোজনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, মুসুল্লিদের জন্য টঙ্গী স্টেশনে স্থায়ী টয়লেট ছাড়াও অস্থায়ী ৪০টি অজুখানা ও ২৫টি প্রস্রাবখানা নির্মাণের ব্যবস্থা কার হয়েছে। গত বছর একসঙ্গে ২০ জন মুসল্লির অজু করার ব্যবস্থা ছিল। সেখানে এ বছর এক সঙ্গে ৪০ জন মুসল্লির অজুর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এছাড়া মুসল্লিদের জন্য টঙ্গী স্টেশনে ৩০টি টয়লেট, ৬০ জনের বিশ্রামের জন্য অস্থায়ী বিশ্রামাগার, ৬০ জন মুসল্লির নামাজের জন্য অস্থায়ী নামাজ ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) বিভিন্ন ডিপো থেকে ২২৮টি স্পেশাল বাস সার্ভিসের উদ্যোগ নিয়েছে সংস্থাটি। দেশের ১৩টি রুটে এই বাসগুলো আজ ৮ থেকে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ে চলবে। ১৫ থেকে ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত দ্বিতীয় ধাপে মোট ১৪টি দিন চলবে এসব বাস।

বিদেশি মুসল্লিদের জন্য রিজার্ভ থাকবে তিনটি বাস। বাস তিনটি এয়ারপোর্ট থেকে ইজতেমা পর্যন্ত চলবে। এ ছাড়া ২৯টি বাস চলবে আব্দুল্লাহপুর-মতিঝিল ভায়া ইজতেমা স্থল। ১৩টি বাস চলবে শীববাড়ী-মতিঝিল ইজতেমাস্থল, ১৭টি বাস চলবে টঙ্গী-মতিঝিল ইজতেমাস্থল, ৬টি গাজীপুর (চৌরাস্তা)-মতিঝিল ইজতেমাস্থল, ৫টি গাবতলী-গাজীপুর ভায়া ইজতেমাস্থল, ৩৫টি বাস চলবে গাবতলী-মহাখালী ভায়া ইজতেমাস্থল, ২৫টি গাজীপুর-মতিঝিল ভায়া ইজতেমাস্থল, ২০টি মতিঝিল-বাইপাইল ভায়া ইজতেমাস্থল, ২০টি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ, ২০টি চলবে চিটাগাং রোড-সাভার, ২০টি ঢাকা-নরসিংদী, ২৫টি চলবে ঢাকা-কুমিল্লা সড়কে।

বিআরটিসি ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (অপ-১) খান কামাল উদ্দীনের দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেছেন, ‘বিশ্ব ইজতেমায় বিআরটিসি বাস সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য প্রধান কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোলরুম থাকবে। ফোন-৯৫৬৪৩৯১। সার্বিক দায়িত্বে থাকবেন বিআরটিসির ভারপ্রাপ্ত প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা এটিএম আব্দুল লতিফ। যে কোনো মুসল্লি ০১৭১১-৪২৭৮৮৫ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করে বাস সম্পর্কে জানতে পারবেন।’

এ ছাড়া জোয়ারাসাহারা বাস ডিপোতেও একটি কন্ট্রোল রুল থাকবে। যার সার্বক্ষণিক দায়িত্বে থাকবেন জোয়ারাসাহারা বাস ডিপোর ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার কাজী নাসিরুল হক ও সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা মো. শাহদাত তালুকদার। ফোন-৮৯০০৬৫৫ এবং মোবাইল ০১৭১১-৩০২১২৪। এই ফোনে যে কেউ মুসল্লি বিআরটিসি বাস সম্পর্কে জানতে পারবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।






মন্তব্য চালু নেই