মেইন ম্যেনু

বিসিএসে যে চার ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের সুযোগ বেশি

শাহীনুর ইসলাম শাহীন : ইঞ্জিনিয়াররা হচ্ছে দেশ গড়ার কারিগর। একটা দেশের সব ধরনের উন্নয়ন ইঞ্জিনিয়ারদের হাত দিয়েই হয়ে থাকে। সরকারি চাকরিতে ইঞ্জিনিয়ারদের অবস্থা মোটামুটি ভাল। সবচেয়ে ভাল ছাত্ররা ইঞ্জিনিয়ারিং ও ডাক্তারি পড়াশোনা করে।

অথচ সরকারি চাকরিতে এই পেশার লোকজনকে অন্য জেনারেল পেশার লোকজনের চেয়ে মাত্র একটি ইনক্রিমেন্ট বেশি দেওয়া হয়, যা মোটেই সন্তোষজনক নয়। ডাক্তার ও ইঞ্জিনিয়ারদের জেনারেল ছাত্রদের তুলনায় কমপক্ষে ৩ টি বেশি ইনক্রিমেন্ট দেওয়া উচিত।

যে কোন ইঞ্জিনিয়ার চাইলে অনার্স সম্পন্ন করার পর বিসিএস দিয়ে ২৮ টি ক্যাডারের মধ্য সর্বোচ্চ ২০টি চয়েজ দিয়ে জেনারেল ক্যাডার অথবা টেকনিক্যাল ক্যাডারে জয়েন করতে পারে। জেনারেল ক্যাডারের মধ্য রয়েছে যেমন : বিসিএস পররাষ্ট্র, বিসিএস পুলিশ, বিসিএস এ্যাডমিন/কাস্টমস/ট্যাক্স/হিসাব ও নিরীক্ষা/ইকোনমিক………ইত্যাদি।

টেকনিক্যাল ক্যাডারের মধ্য রয়েছে অনার্সে নিজের বিষয়ের সাথে সঙ্গতিপূর্ন ক্যাডার। তবে সব ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের সাথে সঙ্গতিপূর্ন টেকনিক্যাল ক্যাডার চয়েজের সুযোগ নেই।

মাত্র ৪ টি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের এই সুযোগ রয়েছে।

(১) সিভিল ইঞ্জিনিয়ার : এই ডিপার্টমেন্টের ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য রয়েছে : বিসিএস : সড়ক ও জনপথ, বিসিএস : গণপূর্ত, বিসিএস : রেলওয়ে, বিসিএস : জনস্বাস্থ্য ইত্যাদি। এছাড়া প্রথম শ্রেণীর নন-ক্যাডার জব হলো : LGED, DPHE, HED, EED ইত্যাদি। প্রথম শ্রেণীর জব হিসেবে রয়েছে, যেমন : পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিভিন্ন ওয়াসা ,বিভিন্ন সিটি কর্পোরেশন, বিভিন্ন গ্যাস ফিল্ড, তিতাস গ্যাস, পেট্রোবাংলা, বাপেক্স ,জিটিসিএল, পিজিসিবি, বাংলাদেশ সেতু কতৃপক্ষ, রাজউক, ক্যাপ্টেন হিসেবে ( বাংলাদেশ সেনাবাহিনী /নৌবাহিনী ), সিডিএ, কেডিএ,অারডিএ, বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং এন্ড ফাইন্যান্স কর্পোরেশন, বাংলাদেশ হাউজিং এন্ড বিল্ডিং রিচার্স ইনষ্টিটিউট, গৃহায়ন কতৃপক্ষ, নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর , বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন, বাংলাদেশ নৌপরিবহন কতৃপক্ষ, বিএডিসি, কৃষি,মৎস, বন, পর্যটন, ডেসকো, ডিপিডিসি, পল্লী বিদ্যুৎ, আরইবি, পিডিবি, BCSIR, পৌরসভা ইত্যাদি। বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক ( ইঞ্জি : ও জেনারেল হিসেবে) এবং বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

(২) ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিকাল : এই দুই ডিপার্টমেন্টের ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য রয়েছে : বিসিএস : সড়ক ও জনপথ ( ই/এম) , বিসিএস : গণপূর্ত( ই/এম), বিসিএস : রেলওয়ে, বিসিএস : বাংলাদেশ বেতার (তথ্য) ইত্যাদি। নন-ক্যাডার হিসেবে রয়েছে LGED,EED ইত্যাদি। এছাড়া প্রথম শ্রেণীর জব হিসেবে রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ডেসকো, ডিপিডিসি,বিটিসিএল, পিজিসিবি, জিটিসিএল, পেট্রোবাংলা, বাপেক্স, তিতাস গ্যাস, বিভিন্ন গ্যাস ফিল্ড, পল্লী বিদ্যুৎ, পিডিবি, অারইবি,বিভিন্ন গ্যাস ফিল্ড, বিভিন্ন কয়লাখনি, পোর্ট, জাহাজ নির্মাণ শিল্প, BCSIR, ক্যাপ্টেন ইত্যাদি। বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক ( ইঞ্জি : ও জেনারেল হিসেবে ) এবং বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

(৩) টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং : এই ডিপার্টমেন্টের ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য রয়েছে বিসিএস : বাংলাদেশ বেতার (তথ্য)। তবে বিসিএস এ জেনারেল ক্যাডার চয়েজ দেওয়ার সুযোগ অাছে। আরইবি ও সরকারি ব্যাংকে ( যেমন সোনালী, জনতা, অগ্রনী ইত্যাদি ) অাইটি ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ করা হয়। এছাড়া বিটিসিএল, বিএসসিসিএল, টেলিটক, ডিপিডিসি, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন হিসেবে যোগদান করার সুযোগ অাছে। তাছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক ( ইঞ্জি : ও জেনারেল) ও বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

এছাড়া রয়েছে,

১) কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার : বিসিএস এ টেকনিক্যাল পোষ্ট নেই। তবে বিসিএস দিয়ে জেনারেল ক্যাডার পোষ্টে যাওয়ার সুযোগ অাছে। এছাড়া টেলিটক, বিসিসি, বিটিসিএল, BCSIR, ক্যাপ্টেন, বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক ( ইঞ্জি : ও জেনারেল হিসেবে ) এবং সহকারী প্রগ্রামার হিসেবে ও বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

২) কেমিক্যাল ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং : বিসিএস এ টেকনিক্যাল পোষ্ট নেই। তবে বিসিএস দিয়ে জেনারেল ক্যাডার পোষ্টে যাওয়ার সুযোগ অাছে। এছাড়া প্রথম শ্রেণীর জব হিসেবে BCSIR ও ক্যাপ্টেন হিসেবে নিয়োগ করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক (জেনারেল হিসেবে) ও বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

৩) ধাতব কৌশল : বিসিএস এ টেকনিক্যাল পোষ্ট নেই। তবে বিসিএস দিয়ে জেনারেল ক্যাডার পোষ্টে যাওয়ার সুযোগ অাছে। এছাড়া প্রথম শ্রেণীর জব হিসেবে বাংলাদেশ ধাতব কৌশলে, ক্যাপ্টেন ও BCSIR এ নিয়োগ করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক (জেনারেল হিসেবে) ও বিভিন্ন ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

শাহীনুর ইসলাম শাহীন
রুয়েটের সাবেক শিক্ষার্থী ও সাব ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার
মিনিস্ট্রি অব হাউজিং এন্ড পাবলিক ওয়ার্কস






মন্তব্য চালু নেই