মেইন ম্যেনু

বিড়াল টয়লেট ব্যবহার করতে পারে – জানুন আরো কিছু মজার তথ্য

পৃথিবীর সবচেয়ে যে প্রাণীটিকে পোষ মানানো হয় তার নাম বিড়াল। ইংরেজীতে যাকে আমরা CAT বলে ডাকি।

১. আমেরিকাতে সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয় গৃহপালিত চতুস্পদ পোষা প্রাণী হল বিড়াল। American pet product manufacturers association (APPMA) পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে যে সমগ্র আমেরিকাতে প্রায় ৭৩ মিলিয়ন গৃহপালিত বিড়াল আছে, যেখানে কুকুর আছে প্রায় ৬৮ মিলিয়ন।

২. বিড়াল তার জীবনের দুই তৃতীয়াংশ সময় ঘুমিয়ে কাটায় :গড়ে একটি বিড়াল দিনে প্রায় ১৬ ঘণ্টা ঘুমিয়ে থাকে। যদি আপনার বিড়ালটির বয়স ৯ বছর হয় তবে এটি তার জীবনের ৬ টি বছর ঘুমিয়ে কাটিয়েছে। বিড়ালেরা প্রায়ই তাদের পছন্দের একটি জায়গা খুঁজে নেয় এবং এটিকে তাদের ঘুমের প্রিয় জায়গা বানিয়ে নেয়।

৩. বিড়ালের মানুষের মতই আবেগ আছে
বিড়ালের আবেগ আছে এবং এরা সুখ, দুঃখ, বেদনা, রাগ, উত্তেজনা এবং কৌতুকপ্রবনতা অনুভব করতে পারে। যদিও এদের আবেগের পরিধি এবং গভীরতা নিয়ে অনেক বিতর্ক করা যেতে পারে, গবেষণাতে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে বিড়াল ছানার মানুষের আবেগ বোঝার প্রবনতা আছে। বিড়ালের মস্তিস্কের ‘gray matter’ এর সাথে মানুষের মস্তিস্কের সে অংশের অনেক সাদৃশ্য দেখা যায়।

৪. বিড়ালের কামড় বিপদজনক : পরিসংখ্যানে দেখা যায় যে সমগ্র আমেরিকা জুড়ে প্রতি বছর প্রায় ৪০,০০০ মানুষ বিড়ালের কামড় খায়। Briarcliff Animal Hospital এর বর্ণনা মতে বিড়ালের কামড় খুবই মারাত্মক এবং তা কঠিন ব্যাকটেরিয়া জনিত সংক্রমনের দিকে রূপ নিতে পারে। এটি পেনিসিলিন দিয়ে চিকিৎসা করা যেতে পারে। তবে এটিকে যদি উপেক্ষা করা হয় তবে এটি রক্ত সংবহনের (lymph system) মাধ্যমে ছড়িয়ে পরতে পারে এবং বিরল ক্ষেত্রে মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

৫. বিড়ালের জন্মগত GPS আছে : বিড়াল হারিয়ে গেলে তার নিজ থেকে চিনে বাড়িতে ফেরার সক্ষমতা আছে। বিশেষজ্ঞরা এ ধরণের সক্ষমতাকে সূর্যালোকের কৌণিক হিসাব, পৃথিবীর চৌম্বকীয় ক্ষেত্র, এবং PSI traveling এর সাথে সম্পর্কিত বলে মনে করে থাকেন। এ ধরণের অনেক প্রমান আছে যে বিড়াল তার বাড়ি পৌঁছানর জন্য অনেক দীর্ঘ পথ অতিক্রম করেছে।

৬. বিড়াল টয়লেট ব্যবহার করতে পারে:বিশেষজ্ঞরা বলেন যে আপনার বিড়ালের বর্জ্য ত্যাগের জন্য কোন রকম ‘kitty litter’ কেনার দরকার নেই। বিড়ালকে মানুষের ব্যবহৃত টয়লেট এবং ফ্ল্যাশ ব্যবহারের জন্য প্রশিক্ষিত করা যেতে পারে। একবার যদি প্রশিক্ষন দিতে পারেন তবে বিড়াল তার প্রকৃতির ডাকে আরামদায়ক ভাবে সাড়া দেয়ার জন্য সব সময়েই টয়লেট খুঁজে নিবে।

৭. বিড়াল বেশ উচ্চ লাফ দিতে পারে : প্রকৃতপক্ষে বিড়াল এক লাফে তার নিজের উচ্চতার প্রায় ৫ গুণ লাফাতে পারে। বিড়ালের মালিকের প্রতি এ তথ্য কি বার্তা দেয়? আপনার ভঙ্গুর জিনিসপত্র এর আওতার বাইরে রাখুন এবং সম্ভব হলে বিড়ালের খেলনা হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করতে আপনার ভঙ্গুর চীনামাটির তৈজসপত্রের সংগ্রহ ক্যাবিনেটের মধ্যে রাখুন।

৮. আকার কোন বিষয় নয় : ছোট আকার সত্বেও একটি বিড়ালের দেহে প্রায় ২৯০ টি হাড় এবং ৫১৭ টি মাংসপেশী আছে, যেখানে মানুষের দেহে—যে বিড়ালের চেয়ে আকারে অনেক বড়—তার আছে মাত্র ২০৬ টি হাড়। খুব কম ক্ষেত্রেই বিড়ালের হাড় ভাঙ্গতে দেখা যায় এবং অনেক উপর থেকে পরলেও তা সাধারণত অক্ষত থাকে।

৯. বিড়ালের জিহ্বা : আপনি কি জানেন যে আপনার বিড়ালের জিহ্বা বিভিন্ন অংশে বিভক্ত এবং একেক অংশ একেক রকমের স্বাদ গ্রহণের জন্য ব্যবহৃত হয়? বিড়াল মিষ্টি বস্তুর স্বাদ বুঝতে পারে না তাই আপনার বিড়ালের জন্য ব্যবহৃত দুধে চিনি দেয়ার কোন দরকার নাই, এটি কোন কাজেই আসবে না। চকোলেটও বিড়ালের জন্য ক্ষতিকর।

১০. বিড়ালের চোখের রং: আপনি কি আপনার বিড়ালের চোখের রং কখনো লক্ষ্য করেছেন? একজন বিড়ালের মালিক হিসাবে আপনি হয়তো লক্ষ্য করে থাকবেন যে, বয়সের সাথে সাথে বিড়ালের চোখের রংয়ের পরিবর্তন হয়।






মন্তব্য চালু নেই