মেইন ম্যেনু

বিয়ের আগেই শারীরিক সম্পর্ক: সমস্যায় পড়তে পারেন!

শারীরিক ঘনিষ্ঠতা হলে অনেকেই ভাবেন তাঁরা একে অপরকে সত্যি ভালবাসেন। কিন্তু কখনও কখনও এটা নাও হতে পারে। বিশেষত টিনএজাররা এই উত্তেজনাটা উপভোগ করেন। কিন্তু পরে অনেকেরই মনে হয়, তাঁরা আদৌ একে অপরকে ভালবাসেন না।

বিয়ের আগেই শারীরিক ঘনিষ্ঠতা হয়েছে আপনার? নাকি তেমন কোনও অভিজ্ঞতা নেই। জানেন কি, গবেষণা বলছে সেক্সের অভিজ্ঞতা বিয়ে পর্যন্ত বাঁচিয়ে রাখাই ভাল! কেন জানেন? বিয়ের আগে শারীরিক ঘনিষ্ঠতা হলে বেশ কয়েকটি সমস্যা হতে পারে আপনার। জেনে নিন সেগুলি কী?

১. শারীরিক সম্পর্ক প্রেম ভেঙে দেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা হতে পারে। তাই বিয়ের আগে সেক্স একটা সময় এনজয় করলেও পরে খারাপ লাগতে পারে।

২. আপনার সঙ্গীকে নিয়ে যদি মনে কোনও প্রশ্ন থাকে, শারীরিক সম্পর্ক না হলে তা নিয়ে আরও গভীর ভাবে চিন্তা করতে পারবেন।

৩. বেশ কিছু গবেষণার দাবি, সেক্সের অভিজ্ঞতা যাঁরা বিয়ে পর্যন্ত টিকিয়ে রাখেন, তাঁদের সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী হয়।

৪. বিয়ের আগে শারীরিক ঘনিষ্ঠতা হলে অনেকে অপরাধ বোধে ভোগেন।

৫. বিয়ের আগে শারীরিক ঘনিষ্ঠতা অনেক সময় পরবর্তী ক্ষেত্রে সম্পর্ক ভেঙে গেলে শারীরিক নির্যাতন বলেও মনে হতে পারে।

৬. ডেটিংয়ের সময় শারীরিক ঘনিষ্ঠতা কমি‌উনিকেশনের একটা মাধ্যম। কিন্তু শুধু শারীরিক ভাবে একে-অপরকে চেনাটা কোনও কাজের কথা নয়। এতে কখনও কখনও কমিউনিকেশন গ্যাপের জন্য মানসিক দূরত্ব বাড়তে পারে।

৭. বিয়ের আগেই শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে বিষয়টি বাবা-মায়ের থেকে লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করেন অনেকেই। ঘটনাটি চাপা দেওয়ার জন্য দু’জনের মধ্যেই টেনশন কাজ করে। তাই শারীরিক সম্পর্কের অনুভূতি বিয়ে পর্যন্ত বাঁচিয়ে রাখুন। আর জমিয়ে আড্ডা দিন প্রেমিক বা প্রেমিকার বাবা-মায়ের সঙ্গে।






মন্তব্য চালু নেই