মেইন ম্যেনু

পছন্দমত গান শুনতে না দেওয়ায়

বিয়ের আসরে বরের বাবাকে গুলি করে হত্যা

বিয়ের অনুষ্ঠানে পছন্দমত গান শুনতে না দেওয়ায় বরের বাবাকে গুলি করে হত্যা করেছে এক মাতাল অতিথি। ভারতের উত্তরখন্ড প্রদেশের হরিদ্দার জেলার মাঙ্গালুর শহরের কাছে সাকোতি গ্রামে শুক্রবার রাতে ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

একদল মাতাল যুবক অতিথি হিসেবে বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিল। সেখানে ডিজে পার্টি নানা ধরনের গান বাজনা বাজাচ্ছিল। ডিজে পার্টিকে নিজেদের পছন্দমত গান বাজাতে বলেছিল ওই মাতালরা। তারা গান শুনছিল আর নাচছিল। একটার পর একটা বলিউডের সেরা গান বাজাচ্ছিল ডিজে পার্টি। কিন্তু রাত বেড়ে যাওয়ায় বরের বাবা বিশ্বাস রাম সেসময় তাদের মাঝখানে এসে ডিজে পার্টিকে গান বাজনা বন্ধ করতে বলেন। বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু করার জন্যই তিনি গান বাজনা বন্ধ করতে বলেছিলেন।

গান বন্ধ করতে বলায় মাতালদের মধ্যে তেলুরাম নামের এক যুবকের সঙ্গে বরের বাবার তর্ক বিতর্ক শুরু হয়। সেসময় বরের পরিবারের লোকজনও বিশ্বাস রামকে সমর্থন করছিলেন। অগ্যতা মাতালদের মধ্যে একজন পকেট থেকে পিস্তল বের করে। পিস্তলের ভয় দেখিয়ে ডিজে দলকে তাদের পছন্দমত গান ছাড়তে বলে। মাতালরা অস্ত্রের মুখে বরের পরিবারের লোকদেরকে ভয় দেখানো শুরু করে এবং তাদের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে।

মাঙ্গালুরের পুলিশের এসও নবীন সেমওয়াল টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন, ‘‘মধ্যরাতে রাম বলছিলেন অনেক দেরি হয়ে যাচ্ছে। বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু করা উচিত।” তিনি এ কথা বলার পরই মাতাল যুবকদের সঙ্গে কলহ শুরু হয়।

এক পর্যায়ে তিনি মাতাল যুবকদেরকে অনুষ্ঠান ছেড়ে চলে যেতে বলেন। এতে খুব অপমানিত হয় ওই যুবকরা। এই অপমান সইতে না পেরে এক যুবক রামকে গুলি করেন।

এ ব্যাপারে পুলিশ কর্মকর্তা নবীন জানিয়েছেন,‘‘পুলিশের একটি দল মাঙ্গালুরের ঘটনাস্থলে পৌঁছে রামকে একটি সরকারি হাসপালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

মাতাল তেলুরাম ছাড়াও ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল মদনপাল এবং সুমিত সিং নামের দুই যুবক। ওই হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।






মন্তব্য চালু নেই