মেইন ম্যেনু

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ি, অতঃপর রাতভর ধর্ষণ

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামে ২২ বছর বয়সী এক কলেজ ছাত্রীকে রাতভর পালাকরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মেয়েটি বিয়ের দাবি প্রেমিক বকুল হোসেনের বাড়িতে যাওয়ার পর তাকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে রাতভর নির্যাতন চালানো হয়।

মেয়েটি বাড়ি মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার জারিয়াপুর। খবর পেয়ে পুলিশ মঙ্গলবার সকালে মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বকুলসহ বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। ঝিনাইদহ সদর থানায় ধর্ষিতা কলেজ ছাত্রী জানান, তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়ে পোড়াহাটী গ্রামের ইমান আলীর ছেলে বকুল হোসেন প্রায় দুই বছর ধরে সম্পর্ক গড়ে তোলে। বকুল হোসেন তাকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দিলে সোমবার রাতে মেয়েটি বকুলের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে হাজির হয়। মেয়েটি পোড়াহাটি গ্রামে আসার পর বকুল ও তার পরিবারের লোকজন তাকে দঁড়ি দিয়ে ঘরের খুটির সাথে বেঁধে সারারাত নির্যাতন চালায়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান জানান, মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই