মেইন ম্যেনু

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারীকে ধর্ষণ, অতঃপর….

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার নন্দারচালা এলাকায় এক নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে এক লম্পট। এ ঘটনায় ওই লম্পটকে আটক করে এলাকাবাসি গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মঙ্গলবার রাতে জোরপূর্বক ওই নারীকে ধর্ষণ করার সময় এলাকাবাসি তাকে আটক করে এবং পরে গণধোলাই দিয়ে বুধবার পুলিশে সোপর্দ করে।

আটককৃত ধর্ষক গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার নন্দারচালা এলাকার খুরম মিয়ার ছেলে মান্নান মিয়া।

এলাকাবাসী ও ধর্ষিতা নারীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ১বছর আগে ওই নারীর সাথে জামালপুরের শরিষাবাড়ি থানার ফোলধাপাড়া এলাকার দুখুমিয়ার সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকতো। একপর্যায়ে ওই নারী তার স্বামীর বাড়ি থেকে অভিমান করে কালিয়াকৈরের নন্দারচালা তার বাবার বাড়ি চলে আসে।

এ সুযোগে ওই এলাকার প্রভাবশালী মান্নান মিয়া বিভিন্ন সময় ওই নারীকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে সে রাজি না হওয়ায় কৌশলে ওই লম্পট তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখায়। বিয়ের প্রলোভনে পড়ে ওই নারী গত ৫ মাস আগে তার স্বামীকে তালাক দেয়। এরপর থেকেই প্রতি রাতেই ওই নারীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে লম্পট মান্নান।

পরে ওই নারী মান্নানকে বিয়ের জন্য চাঁপ দিলে সে এড়িয়ে যেতে থাকে। বিষয়টি বুঝতে পেরে মান্নানের সাথে ওই নারী শারীরিক সম্পর্ক থেকে বিরত থাকে। পরে বিষয়টি তার পরিবারকে অবহিত করলে ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় শালিস বৈঠক হয়। এতে লম্পট মান্নান আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং ওই নারী ও তার পরিবারের লোকজনকে নানা প্রকার ভয়ভীতি দেখাতে থাকে।

এরই জের ধরে মঙ্গলবার রাতে লম্পট মান্নান জোরপূর্বক ওই নারীর ঘরে ঢুকে এবং তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ওই নারীর চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে ধর্ষক মান্নান মিয়াকে আটক করে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে মান্নানের পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

পরে রাতেই মান্নানের পরিবারের লোকজন ওই নারী ও তার মাকে আটক করে স্থানীয় লাল মিয়ার বাড়িতে আটকে রাখে। এসময় স্থানীয় গ্রাম পুলিশ অনিল চন্দ্র রায় চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে না জানিয়ে মা-মেয়েকে লাঠি দিয়ে পেটায়। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে বুধাবর বেলা ৩টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারী ও তার মাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে হাসপাতাল থেকে লম্পট মান্নানকে গ্রেফতার করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল্লাহ আল তায়েবীর জানান, খবর পেয়ে ওই নারী ও তার মাকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং মান্নানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই