মেইন ম্যেনু

বিয়ে করতে এসে জনতার ধাওয়া খেয়ে পালাল বরযাত্রী!

বিয়ে করতে এসে জনতার ধাওয়ার মুখে পড়ে পালিয়ে গেছে বরযাত্রী। জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলার ডিঙ্গাভাঙ্গা গ্রামে বাল্যবিয়ে করতে আসায় বরযত্রীদের ধাওয়া করে এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর ধাওয়ায় দ্বিগবিদিক ছুটে পালিয়ে রক্ষা পায় বরপক্ষ।

জানা গেছে, শুধু বাল্যবিয়েই নয়, বরের প্রথম স্ত্রী ও সন্তানও কনেবাড়িতে এসে উপস্থিত হওয়ায় বর, তার বাবা ও ঘটককে আটক রাখে তারা। পরে মুচলেকায় এবং বিভিন্ন শর্তে ছাড়া পায় তারা। সোমবার (১৬ মে) এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নের পেয়ারীখোলা গ্রামের আ. লতিফ প্রধানের ছেলে প্রবাসী নাজমুল আলম (৩০) সোমবার আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে ডিঙ্গাভাঙ্গা গ্রামের দিনমজুর জসিম উদ্দিনের সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে (১৩) বিয়ে করতে যান। ওই বাড়িতে খাওয়া-দাওয়ার শেষ মুহূর্তে হাজির হয় নাজমুলের প্রথম স্ত্রী মাহমুদা আক্তার ও পাঁচ বছর বয়সী ছেলে বাপ্পী। এতে পণ্ড হয়ে যায় বিয়ের সব আয়োজন।

ঘটনাটি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে বিয়েবাড়িতে আশপাশের শতশত নারী-পুরুষ জড়ো হতে থাকে। এক পর্যায়ে বরযাত্রীরা জনতার ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে গেলেও বর নাজমুল আলম ও তার বাবা আ. লতিফ প্রধান ও ঘটক সফিককে আটক করে রাখে তারা।

রাতে উভয়পক্ষের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতি শালিস বসে । সেখানে নাবালিকাকে বিয়ে না করা, জরিমানা দেয়া এবং প্রথম স্ত্রী- সন্তানকে গ্রহণ করার শর্তে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।






মন্তব্য চালু নেই