মেইন ম্যেনু

বিয়ে করতে গিয়ে স্বাদ মিটল বরের

বিয়ে করতে গিয়ে স্বাদ মিটল এক বরের। তাকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পায় কেরানীগঞ্জ উপজেলার আটি নয়াবাজার এলাকার জাহানারা আক্তার শিমুল নামে ১৩ বছরের এক কিশোরী।

২৮ বছরের এক যুবকের সঙ্গে সোমবার তার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। রোববার দুপুরে কেরানীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অঞ্জন কুমার সরকার ঘটনাস্থলে গিয়ে বিয়ে ভেঙে দেন।

বাল্যবিয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে বর শফিকুলকে আটক করে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাবার অমতে মা জোর করে ওই ছেলের সঙ্গে মেয়েটিকে বিয়ে দিচ্ছিল বলে অভিযোগ ওঠে। এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে নিয়ে মেয়েটির বাড়িতে গেলে তারা বিয়ে বন্ধ করবে না জানিয়ে দেয়।

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অঞ্জন কুমার সরকার বলেন, ওই মেয়ের পরিবার নয়াবাজার এলাকায় জনৈক নুরু মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন। বাবা রিকশাচালক এবং মা গৃহিনী।

তিনি বলেন, মেয়েটির অমতে তাকে বিয়ে দেয়া হচ্ছিল। বাল্যবিয়ে বন্ধ করে বরকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই