মেইন ম্যেনু

বুকের লোম ফেলে দিলে কী গুনাহ হবে?

পাঠকের প্রশ্ন : আমি ১৮ বছর বয়সী একজন তরুণ। আমার শরীরে অনেক লোম, বিশেষ করে বুকে। এর জন্য অনেক সময় আমাকে লজ্জা পেতে হয়। কারো সামনে খালি গায়ে যেতে পারি না। যদিও আমি এসব নিয়ে চিন্তা করি না। তবুও আমি জানতে চাই, ইসলামে লোম ফেলে দেওয়া কী গুনাহ? আর গুনাহ হলে তার শাস্তি কী?

বিশেষজ্ঞের উত্তর : প্রিয় পাঠক ধন্যবাদ আপনার প্রশ্নের জন্য। ইসলাম ধর্মে মানুষের শরীরের লোম নিয়ে তিন ধরনের বিধান রয়েছে।

এক. লোম ফেলে দেয়া সুন্নাত। যেমন : গোফ ছোট করা, বগল ও নাভীর নিচের লোম ফেলে দেয়া ইত্যাদি সুন্নত।
দুই. লোম ফেলে দেয়া হারাম। যেমন : দাড়ি, ভ্রু ইত্যাদি।
তিন. লোম ফেলে দেয়া জায়েজ। যেমন : দাড়ি ও ভ্রু বাদে অন্য অংশের লোম।

হাদিসে লোম ফেলা না ফেলার ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা নেই। তাই একদল উলামা মনে করেন যেহেতু নিষেধ নেই সেহেতু এটা করা যাবে। পাশাপাশি আরেকদল উলামা মনে করেন, শরীয়তে যে লোম ফেলতে বলা হয়েছে এ ব্যতীত অন্য লোম ফেলা হারাম। কেননা এটা আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টির বিকৃতি করার ন্যায় গুনাহ। পুরুষের শরীরে লোম থাকা পুরুষত্বের আলামত। আর নারীদের শরীরে লোম না থাকা নারীত্বের আলামত। অতএব পুরুষদের উচিত নারীদের মত না হওয়া। শুকরিয়া

পরামর্শ দিয়েছেন :

মুহাম্মদ আমিনুল হক

সহযোগী অধ্যাপক

ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম।

পিএইচডি গবেষক

কিং আব্দুল আজীজ ইউনিভারর্সিটি জেদ্দা

সৌদি আরব।






মন্তব্য চালু নেই