মেইন ম্যেনু

বুড়োর পর্ন নেশা ছাড়াতে বুড়ির কান্ড!

বয়স হয়েছে তারপরও যায়নি পুরানো অভ্যাস। বিয়ের আগে কম্পিউটারের পর্নগ্রাফি অভ্যাসটা এখনো ছাড়তে পারেননি ৭৮ বছর বয়সী গর্ডন হোমস। বাবা হয়েছেন, হয়েছেন নাতিও তারপরও সেই পর্ণগ্রাফি নিয়ে পড়ে আছেন। যখনই ঘরে কেউ থাকে না তখন ইন্টারনেটে পর্ণগ্রাফিতে মেতে ওঠেন ল্যাঙ্কাশায়ারের এই মানুষটি। এই বয়সে এসব আর কত সহ্য করা যায় না। ৭০ বছরের স্ত্রী লিন্ডা হোমসও সহ্য করতে পারেননি। সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন।

একদিন যখন দেখলেন গর্ডন ল্যাপটপে ব্যস্ত তখন একটা হাতুড়ি নিয়ে কষে মাথায় বসিয়ে দিলেন হাতুড়ির এক ঘা। আর তাতেই অবস্থা খারাপ বুড়োর। বুড়ির চেহারা দেখে আর প্রতিবাদ করা তো দূরের কথা সেখানে থাকার দুঃসাহস দেখালেন না। দৌড়ে বাড়ির বাইরে চলে গেলেন এবং চিৎকার করে সাহায্য চাইলেন। মাথা থেকে রক্ত বেয়ে পড়ছে। প্রতিবেশি বয়স্ক লোকের এমন অবস্থা দেখে তারা তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান, পরবর্তীতে পুলিশের কাছে। পুলিশ ঘটনা শুনে লিন্ডা হোমসকে গ্রেফতার করেছে। তার ১০ মাসের জেলও হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই