মেইন ম্যেনু

বুড়ো হচ্ছেন কবে? জানা যাবে রক্ত পরীক্ষায়

বিশেষ ধরনের রক্ত পরীক্ষা মাধ্যমে জানাতে পারবেন আপনি কত দূরে বুড়িয়ে যাবেন এবং অ্যালঝেইমার রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কতটা। সম্প্রতি চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বিশেষ ধরনের এই রক্ত পরীক্ষার উদ্ভাবন করেছেন।

বিশেষ এই রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যাবে, একজন ব্যক্তি কত দ্রুত বুড়িয়ে যেতে পারে। এছাড়াও অ্যালঝেইমার রোগে আক্রান্তের সম্ভাবনা সম্পর্কেও জানা যাবে। অস্ত্রোপচার অথবা অঙ্গদানের পূর্বে এই পরীক্ষা করালে বিশেষ উপকার পাওয়া যাবে।

বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন, এই গবেষণার মাধ্যমে মানবদেহের কিছু গুরুত্বপূর্ণ জিন সম্পর্কে ধারণা মিলবে। এর ফলে যেকোনো বয়সের ব্যক্তি হতে পারে ছেলে কিংবা বুড়ো তার সঠিক ‘বায়োলজিক্যাল এইজ’ সম্পর্কে জানা যাবে। এটি হবে পারে তাদের বাহ্যিক বয়সের চেয়ে কম অথবা বেশি।

গবেষণায় দেখা গেছে, সুস্থ ব্যক্তি এবং অ্যালঝেইমায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের রক্তে উল্লেখযোগ্য পাথর্ক্য দেখা রয়েছে। এই পরীক্ষার মাধ্যমে মস্তিষ্কের রোগ সংক্রামনের ঝুঁকি শুরুতেই নির্ণয় করা সম্ভব। ফলে রোগ বিস্তারের সম্ভবনা হ্রাস পায়।

লন্ডনের কিংস কলেজের অধ্যাপক জেমস টিম্মনস বলেন, ‘অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রেই ‘এইজিং টেস্ট’ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ অঙ্গ প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে দাতার বায়োলজিক্যাল বয়স গ্রহীতার মধ্যে স্থানান্তরিত হয়।’

টিম্মনস আরও বলেন, ‘বিমা চুক্তি ক্ষেত্রে আমরা ব্যক্তি জন্ম তারিখ, বয়স সব কিছু বিচার করি। তাহলে চিকিৎসার ক্ষেত্রে কেনো নয়? বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ৬০ বছর বয়স্ক একজন ব্যক্তির প্রকৃত বয়স ৬০ নয়। তবে এটিও মানতে হবে বায়োলজিক্যাল বয়স জানার জন্যে এই পরীক্ষা চূড়ান্ত নির্ভরযোগ্য নয়।’






মন্তব্য চালু নেই