মেইন ম্যেনু

বৃদ্ধাশ্রম চালু করার স্বপ্ন সুজানার

জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী সুজানা জাফর শুধু যে মিডিয়াতেই সীমাবদ্ধ হয়ে আছেন তা নয়। সমাজের মানুষ হিসেবে একটা দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এটা তার বাবারও স্বপ্ন।

অভিনয়ের পাশাপাশি এক বছরেরও বেশি সময় ধরে একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত সুজানা। সেখানে প্রতিবন্ধী মানুষদের জন্য নিয়মিত কাজ করছেন তিনি। প্রতিটি মানুষের একটা স্বপ্ন থাকে। আর সেটা বাস্তবায়ন করার জন্য প্রতিনিয়ত চেষ্টায় থাকেন তিনি। সুজানারও রয়েছে একটি বৃদ্ধাশ্রম চালু করার স্বপ্ন।

এটা তার জীবনের একটা বড় স্বপ্ন বলেই জানান তিনি। সুজানা বলেন, আমার বাবাও চাইতেন একটি বৃদ্ধাশ্রম চালু করতে। বাবার সে চাওয়ার পথে এখন আমি হাঁটছি। তার সে স্বপ্ন এখন আমার। আমি সেটা পূরণ করতে চাই। কারণ, বাবার মতো আমারও গরিব-দুঃখী ও অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে খুব ভালো লাগে। আমরা দেখি, অনেক ছেলে বিয়ে করে তাদের বাবা-মাকে অযত্ন-অবহেলায় রাখে। যা মোটেও ঠিক নয়। আমি চাই না, কোনো বাবা-মা বৃদ্ধ বয়সে এসে অসহায়ত্বের মধ্যে দিন কাটান।

এদিকে , অভিনয়ের জগতে আগের চেয়ে এখন কাজের সংখ্যা কিছুটা বাড়িয়েছেন তিনি। সকাল-সন্ধ্যাই ব্যস্ত থাকছেন শোবিজের চৌহদ্দিতে। শুরু থেকেই বেছে বেছে কাজ করছেন। তিনি জানান, কিছুদিন ধরে একসঙ্গে অনেক কাজ করে আসছি। তার মানে এই নয় যে, কাজগুলো ভালো হয়নি। ভালো প্রস্তাব পেয়েছি বলেই রাজি হয়েছি এসব কাজ করতে।

এ মুহূর্তে ঈদের জন্য বেশকিছু খণ্ড নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছেন সুজানা। কিছুদিন আগে সকাল আহমেদের পরিচালনায় ‘চট্টো মেট্রো’ নামে একটি টেলিছবির কাজ শেষ করেছেন। পাশাপাশি আরও কয়েকটি নতুন নাটকের কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন। কিছুদিন আগেই পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ক্লোজআপ তারকা সালমার গাওয়া ‘তুমি আসবা নাকি’ শিরোনামে একটি গানের মিউজিক ভিডিওর মডেল হয়েছেন সুজানা।

এতে তার বিপরীতে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন আশফাক রানা। এ গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু। আসিফ ইকবালের কথায় গানটির সুর করেছেন আহমেদ রাজীব।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মিউজিক ভিডিওটিতে আমি নতুনরূপে দর্শকের সামনে এসেছি। প্রথমবারের মতো এতে সাঁওতালি মেয়ের সাজে সেজেছি। এ সাজে দর্শক কখনোই আমাকে দেখেননি। বলতে পারেন নিজেকে ভেঙে তৈরি করলাম। আমি যে ধরনের কাজ করি সেখান থেকে বেরিয়ে অন্যভাবে এলাম। মিউজিক ভিডিওটি প্রকাশের পর ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। দর্শক অনেক প্রশংসা করেছেন। আশা করছি এ ধারাবাহিকতা সবসময় বজায় রাখবো। সুজানার এ কথার প্রমাণ মিলছে তার নতুন নাটকগুলোতেও। নিজেকে ভেঙে এক অন্য সুজানা হয়েই ধরা দিচ্ছেন তিনি এসব নাটকে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দর্শক সুজানাকে চেনেন। অথচ সে জায়গাটিতে তাকে এখন খুব কমই দেখা যায়। তার কারণ মানসম্মত কাজের অভাব বলে জানিয়েছেন তিনি। ভালো কাজ না পেলে কখনোই করতে রাজি হন না।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখন সে রকম মানসম্মত বিজ্ঞাপনের কাজ হয় না। তাই আমিও হরহামেশা রাজি হই না যতক্ষণ না দেখি একটি ভালো কাজের অফার পাচ্ছি। এদিকে বর্তমানে ‘নন স্টপ’, ‘রোড নম্বর ৭ বাড়ি নম্বর ১৩’ ও ‘এই শহরে’ শিরোনামের ধারাবাহিক নাটকগুলোতে নিয়মিত অভিনয় করছেন সুজানা। তবে ধারাবাহিক নাটকে আগের মতো আর আগ্রহ পান না তিনি। কারণ, আগের মতো এখনকার ধারাবাহিকে তেমন দর্শক নেই বললেই চলে। তাই এ ধরনের নাটক কিছুটা কমিয়ে করছেন সুজানা।

তিনি বলেন, প্রথম কয়েক পর্ব ভালো গল্প দিয়ে বানিয়ে পরে শুধু শুধু কাহিনী বড় করা হয়। তাছাড়া ধারাবাহিকগুলোর শুটিং একটানা হয় না। হুটহাট করে শিডিউল চান পরিচালকরা। তাই একেবারেই ভিন্ন ও ভালো ইউনিট না হলে ধারাবাহিক নাটক করতে চাই না।






মন্তব্য চালু নেই