মেইন ম্যেনু

বেকহ্যামকে ছেড়ে যাচ্ছেন না ভিক্টোরিয়া

সঙ্গীত আর ফ্যাশন নিয়ে নানা সময়েই তিনি থাকেন আলোচনার শীর্ষে। ফের আলোচনায় জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ও ফ্যাশন ডিজাইনার ভিক্টোরিয়া বেকহ্যাম, তবে এবার নিজের পেশাদারিত্ব নিয়ে নয় বরং স্বামী ডেভিড বেকহ্যামের সাথে চলতি সম্পর্কের গুজব নিয়ে!

জানা গেছে, ডেভিড বেকহ্যাম ও ভিক্টোরিয়ার মধ্যে বেশ ক’দিন ধরেই নাকি বনিবনা হচ্ছিল না, এমনকি শীঘ্রই তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাচ্ছে বলেও খবর প্রকাশিত হয়। পরস্পরের ব্যস্ত সিডিউল থাকায় এই ঝামেলা তৈরি হয়েছে বলে ব্রিটিশ মিডিয়ায় গুজব উঠেছিল। কিন্তু সেই গুজব এক ঝলকে উড়িয়ে দিয়ে তাদের দাম্পত্য জীবনে স্বাভাবিকতা নিয়ে কথা বললেন ভিক্টোরিয়া বেকহ্যাম। এবং ব্যক্তিগত এমন গুজব ছড়ানো নিয়ে তিনি কিছুটা বিক্ষুব্ধও বটে! এ প্রসঙ্গে ভিক্টোরিয়া ডেইলি মিররকে বলেন, আমাদের ষোল বছরের দাম্পত্য কি শুধুমাত্র আমাদের ব্যস্ত সিডিউলের জন্য ভেস্তে যাবে! এটা হাস্যকর, কারণ ডেভিড আর আমার ভালোবাসার সম্পর্কটা এত ঠুনকো নয়!

ভিক্টোরিয়া এবং বেকহ্যামের মধ্যে ভালোবাসা বিরাজমান উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, আমি আমার অসাধারণ স্বামী এবং সুন্দর, সাস্থ্যবান ফুটফুটে বাচ্চাদের নিয়ে বেশ আনন্দে আছি। এটা সত্যি যে আমরা আমাদের বিজনেস ও চ্যারিটেবল কাজে কর্মে ব্যস্ত থাকি। কিন্তু শত ব্যস্ততার মাঝেও আমরা আমাদের পরিবার ও নিজেদের সময় দেই।

ডেভিড এবং আমার সম্পর্ক যে স্বাভাবিক আছে, তা প্রমান করার কিছু নেই বলেও মন্তব্য করেন ভিক্টোরিয়া। এ প্রসঙ্গে ডেইলি মিররকে তিনি আরো বলেন, ডেভিড আর আমি খুবই সুখী জীবন যাপন করছি। কারণ আমরা একে অন্যকে খুব ভালো জানি এবং আমাদের ভালোবাসা অটুট আছে। পার্টনার ও বাবা-মা হিসেবেও আমরা ভালো দিন কাটাচ্ছি।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে বিয়েতে আবদ্ধ হন ডেভিড বেকহ্যাম ও ভিক্টোরিয়া জুটি। এ পর্যন্ত তাদের ঘরে আছে চারটি ফুটফুটে সন্তান। বড় ছেলে ব্রুকলেনের বয়স ১৬। তারপর রোমিও, ক্রুজ এবং একমাত্র মেয়ে হার্পারের বয়স চার বছর।






মন্তব্য চালু নেই