মেইন ম্যেনু

বেতন না বাড়ালে মুসলিম হবেন শিক্ষকরা

ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের কাস্টুরবা গান্ধী বালিকা বিদ্যায়তনে (কেজিবিভি) স্থায়ী ও পার্টটাইম হিসেবে কাজ করেন অসংখ্য শিক্ষক। নিয়মিত শিক্ষাদানের কাজ করলেও দীর্ঘদিন ধরে বেতন না বাড়ায় আন্দোলন করছেন তারা। তাতে সাড়া দিচ্ছে না সরকার। তাই তারা হুমকি দিয়েছেন, যদি দাবি পূরণ করা না হয় তবে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হবেন তারা।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষকরা জানিয়েছেন, ২০১৪ সালে স্থায়ী ও পার্টটাইম হিসেবে কাজ করা শিক্ষকদের বেতন বাড়ানো হয়েছে। এটা শুধু হয়েছে উর্দু শিক্ষকদের ক্ষেত্রে। কিন্তু হিন্দি ও সংস্কৃত শিক্ষকদের ক্ষেত্রে তা করা হয়নি।

এ ব্যাপারে আন্দোলনকারী কেজিবিভি পার্টটাইম টিটার্স এ্যাসোসিয়েশনের ডিস্ট্রিক্ট সভাপতি দেশ দীপক ডুবেই টাইম অব ইন্ডিয়াকে বলেন, ‘দাবি আদায়ের জন্য আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর নয়া দিল্লির যন্তরমন্তরের সামনে আন্দোলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। যদি তারপরও দাবি পূরণ করা না হয় তবে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হব আমরা।’

তিনি আরও বলেনে, ‘সরকার ভাষার ভিত্তিতে দেশকে ভাগ করার চেষ্টা করছে। আমরা হিন্দি, সংস্কৃত ও অন্যান্য বিষয়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা দিযে থাকি। তারপরও আমাদের বেতন কম। অথচ উর্দু শিক্ষকদের বেতন বেশি। যেখানে পেঁয়াজের কেজি ৭০ রূপি সেখানে জীবনধারণ করা কত কঠিন তা সহজেই অনুমেয়।’

শিক্ষকদের এমন হুমকি দেওয়ার পর যোগাযোগ করা হয় রাজ্যের প্রজেক্ট ডিরেক্টর অব ইউপি এডুকেশন ফোর অল প্রোজেক্ট বোর্ডের প্রধান শীতল ভর্মার সঙ্গে। অসংখ্যবার চেষ্টা করেও তার নাগাল পাওয়া যায়নি। কারণ মোবাইল ফোনের রিংটোন বেজে গেলেও তা রিসিভ করেননি তিনি।






মন্তব্য চালু নেই