মেইন ম্যেনু

বেলুচিস্তান ইস্যুতে মোদি সরকারকে সমর্থন করবে বাংলাদেশ : ইনু

বেলুচিস্তান ইস্যুতে মোদি সরকারের উদ্যোগকে সমর্থন করবে বাংলাদেশ। একই সাথে ঢাকা শিগগরই পাকিস্তানের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে একটি নীতি গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন দিল্লি সফররত বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। ভারতের প্রভাবশালী গণমাধ্যম হিন্দুকে একথা জানিয়েছেন ইনু।

ইনু বলেন, পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর অত্যাচারে বেলুচিস্তান জ্বলছে। এই সেনারাই ৭১ সালে টার্গেট করে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার আগে পূর্ব পাকিস্তানের বাঙালিদের হত্যা করেছিল। জাতি হিসেবে পাকিস্তানের খারাপ ও উদ্বেগজনক অতীত ইতিহাস রয়েছে।

ইনু বলেন, ১৯৭১ সালে তারা বাঙালিদের কাছে পরাজিত হয়েও কোনো শিক্ষা গ্রহণ করেনি। এখনো তারা বাঙালিদের মতো বেলুচিস্তানের নাগরিকদের উপর একই নীতি গ্রহণ করেছেন। তারা বেলুচিস্তানের স্বাধীনতাকামীদের টার্গেট করে অত্যাচার করছে।

ইনু আরো বলেন, বেলুচিস্তানের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের সমর্থন করতে বাংলাদেশের সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে। খুব শিগরই বাংলাদেশ আনুষ্ঠানিকভাবে বেলুচিস্তানের প্রতি সমর্থন ঘোষণা করবে বলে তিনি জানান।

তিন দিনের সফরে দিল্লি সফরে শেখ হাসিনা সরকারের এই মন্ত্রী ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালসহ দেশের নীতি নির্ধারকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। ইনু একজন মুক্তিযোদ্ধা। তিনি গেরিলা বাহিনীর সাবেক নেতা। ১৯৭১ সালে গেরিলারা স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছিলেন।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)’র নেতা ইনু আরো বলেন, পাকিস্তান তাদের ‘ঐতিহাসিক ভুল’ থেকে কোনো শিক্ষা গ্রহণ করতে পারেনি। পাকিস্তানে সেনা বাহিনীর হস্তক্ষেপের কারণে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে না। বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ সন্ত্রাস বিরোধী কৌশল গ্রহণ করতে চুক্তি করেছে। ইসলাম ও ইতিহাস সুরক্ষা করতে বাংলাদেশ ভারতের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে বলে জানান ইনু।

এছাড়া পাকিস্তান জঙ্গি রফতানি করে বলে মন্তব্য করেন ইনু। পাকিস্তানের এই নীতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। পাকিস্তানের এই কৌশল দক্ষিণ এশিয়ার অঞ্চলে ও সার্কের কর্মকাণ্ডে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। ইসলামাবাদকে ব্যাখ্যা করতে হবে কোন লক্ষ্য অর্জনের জন্য তারা দক্ষিণ এশিয়ার সীমান্তে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দিচ্ছে। -দ্য হিন্দু






মন্তব্য চালু নেই