মেইন ম্যেনু

বেশি দেরি নেই, নির্বাচন আসছে : এমাজউদ্দীন

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনকারী বিএনপির মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবিতে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো সাড়া দেয়া না হলেও ‘অচিরেই নির্বাচন দেখছেন’ দলটির থিঙ্কট্যাঙ্ক হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ। তিনি বলেছেন, ‘বেশি দেরি নেই। নির্বাচন আসছে। সুতরাং আমাদের এখনই প্রস্তুত হতে হবে।’

পবিত্র মাহে রমজানের ১৫তম দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে অংশ নিয়ে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে এমন দাবি করেন ড. এমাজউদ্দীন।

এসময় এমাজউদ্দীন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের একাধিক কাজে মনোনিবেশ না করে এক কাজে মনোনিবেশ করার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, এ মুহূর্তে তোমাদের বুঝতে হবে যে, জাতীয় আকাঙ্ক্ষা কী? সে আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নে তোমাদের কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে একটি জাতীয় নির্বাচন প্রয়োজন। তাই জনমত তৈরি করতে এলাকায় গিয়ে আত্বীয়স্বজনের কাছে এই মেসেজ পৌঁছে দিতে হবে। যদি নির্বাচন হয় তাহলে অন্যসব প্রয়োজন এমনিতেই বাস্তবায়ন হবে। এখন প্রয়োজন গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ফিরিয়ে আনা। আমরা অতিরিক্ত কিছুই চাই না। একটি সুন্দর নির্বাচন চাই।

‘সহাবস্থান, পরমত সহিষ্ণু ইতিবাচক ছাত্র রাজনীতি চর্চার মাধ্যমে আগামী দিনের জাতীয় নেতৃত্ব বিকাশে ডাকসু নির্বাচনের প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক এ আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে ঢাবি শাখা ছাত্রদল।

ঢাবি ছাত্রদলের সভাপতি আল মেহেদী তালুকদারের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন ঢাবির সাবেক প্রো-ভিসি অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, শিক্ষক অধ্যাপক ড. সুকোমল বড়ুয়া, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন, সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ওবায়দুল হক নাসির, ঢাবি ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি তানভীর রেজা রুবেল, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই