মেইন ম্যেনু

বোতলে বানাও ব্যাকটেরিয়ার চিড়িয়াখানা

ব্যাকটেরিয়া এতই ছোট ছোট যে খালি চোখে তা দেখা যায় না। কিন্তু এরা সংখ্যায় হাজার হাজার, লক্ষ লক্ষ এমনকি কোটি কোটি। এদের অবস্থান সবখানেই। ব্যাকটেরিয়ার নিশ্চিত বাসস্থান ঘরেই বানিয়ে নিতে পারে। তুমি হতে পারো ব্যাকটেরিয়ার চিড়িয়াখানার মালিক। এজন্য খুব বেশি উপকরণের প্রয়োজন নেই।

যা যা লাগবে

১. বালতি
২. বেলচা
৩. মিশ্রণ তৈরির জন্য একটি বড় বাটি
৪. একটি চামচ
৫. পুরনো সংবাদ পত্রের ৩-৪ পাতার টুকরো অংশ
৬. ডিমের কুসুম
৭. কাঁচি
৮. একটি ২ লিটারের বোতল
৯. একটি প্লাস্টিকের মোড়ক
১০. রাবার ব্যান্ড

যেভাবে বানাবে
প্রথমে হাফ গ্যালন কাদা মাটি সংগ্রহ কর। এই কাদা মাটির সাথে পানি মিশিয়ে মিল্কশেকের মতো মিশ্রণ বানাও। কিছু কাদা মাটিতে ডিমের কুসুম আর পুরাতন সংবাদপত্র মেশাও। তারপর ২ লিটার বোতলের ভেতরে এই মাটি, কুসুম আর সংবাদপত্রগুলো চামচের সাহায্যে নাড়িয়ে এক করে ফেল। পুরো বোতলটিকে এবার কাদা মাটি দিয়ে পরিপূর্ণ কর।

এবার বোতলের ভেতরে হাফ ইঞ্চির মত পুকুরের পানি ঢালো। বোতলে চাপ দিয়ে উপর থেকে কিছু বাতাস বের করে দাও। বোতলের মুখটি প্লাসটিকের মোড়ক আর রাবার ব্যান্ড দিয়ে বন্ধ করে দাও। বোতলটিকে একটি জানালার পাশে রাখ যেখানে সূর্যের আলো সরাসরি পড়ে না।

দু’মাস পড়ে দেখতে পাবে বোতলের ভেতর একটি লেয়ারের সৃষ্টি হয়েছে। বোতলের নিচের দিকে গাঢ় সবুজ, রক্তবর্ণ এবং কালোবর্ণের ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি হয়ে যাবে। লাল, কমলা, বাদামী এবং রক্তবর্ণের কার্বনের স্তর তৈরি হবে বোতলের মাঝখানে। সবুজ ফটোসিনথিসাইজিং মাইক্রোবস জমবে বোতলের ওপরে।

ব্যাস, তৈরি হয়ে গেল ব্যাকটেরিয়াল চিড়িয়াখানা। বন্ধুদের আনন্দের সাথে জানিয়ে দাও তুমি ও একটি চিড়িয়াখানার মালিক।






মন্তব্য চালু নেই