মেইন ম্যেনু

ব্যক্তিগত কাজ ও সন্তানদের জন্য শপিং করলেন বাবুল আক্তার

প্রায় ৩৮ দিন পর ঘরের বাইরে বের হলেন চট্টগ্রামের আলোচিত এসপি বাবুল আক্তার। বুধবার (৩ আগস্ট) হঠাৎ করেই রাজধানীর রাজারবাগে পুলিশ সদরদপ্তরে যান তিনি। প্রায় এক ঘণ্টা সেখানে অবস্থান করার পর দুপুর ২টার দিকে বেরিয়ে যান তিনি। পদোন্নতির পর তিনি এখানেই সংযুক্ত ছিলেন।

রাত ৯ টার দিকে বাবুল আক্তার বাসায় ফিরেন বলে জানান তার শ্বশুর মোশারফ হোসেন। তিনি বলেন, ‘বাবুল হেডকোয়ার্টার থেকে ২টার দিকেই বের হয়েছে। এরপর ব্যক্তিগত কিছু কাজ সেড়ে ছেলে মেয়েদের জন্য কেনাকাটা করে বাসায় ফিরেছে।’

তবে তিনি কাজে যোগদানের জন্যই সেখানে গেছেন নাকি অন্য কোনো কারণে তা নিশ্চিত করে জানা যায়নি।

এর আগে গত ৩১ জুলাই বাবুল আক্তারের শ্বশুর মোশাররফ হোসেন বলেছিলেন, ‘বাবুল আক্তার ছুটিতেই আছেন।’ তবে স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু খুন হওয়ার পর থেকে কর্মস্থলে যাননি।

চলতি বছরের জুনে স্ত্রী মিতু হত্যার পর থেকে সন্তানদের নিয়ে ঢাকায় শ্বশুর বাড়িতেই থাকছেন বাবুল আক্তার। মামলা তদন্তের এক পর্যায়ে তাকে ওই বাসা থেকে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ। ১৫ ঘণ্টা পর বাড়ি ফেরেন তিনি। তবে এরপর থেকে নিজের কর্মস্থল পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সে জাননি বাবুল আক্তার।

কর্তৃপক্ষও তাকে চাকরিতে যোগদান করার জন্য কিছু বলেননি। তার কর্মস্থলে ফেরা নিয়ে পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্যে দ্বিধাবিভক্তির সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে বাবুল নিজে এ প্রসঙ্গে কিছু বলছেন না।

এ বিষয়ে রোববার বাবুল আক্তারের শশুর মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমার জামাতা (বাবুল আক্তার) বাড়িতেই থাকে। আমরা মনে করি সে ছুটিতে। তার ছুটি আছে কি শেষ সে বিষয়ে পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স ভালো বলতে পারবে।’






মন্তব্য চালু নেই