মেইন ম্যেনু

ব্যাংকে ডাকাতির সময় প্রহরারত নিহত দুই আনসার সদস্যের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য প্রদান

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সোনালী ব্যাংকে ডাকাতির সময় প্রহরারত নিহত দুই আনসার সদস্যের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়েছে।
সোমবার সকাল ১১টার দিকে ব্যাংক ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নিহত দুই আনসার সদস্যের পিতা ও স্ত্রীর হাতে নগদ ১০লাখ টাকা তুলে দেয়া হয়।

ডাকাতির প্রচেষ্টাকালে গত ১৪জুলাই পবিত্র শবে কদরের রাতে কলারোয়া বাসস্ট্যান্ডস্থ সোনালী ব্যাংকের দ্বিতীয় তলায় প্রহরারত ব্যাংকের দুই গার্ড আনসার সদস্য উপজেলার ঝাপাঘাট গ্রামের আ.কাইয়ুমের পুত্র জাহাঙ্গীর হোসেন ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার হরিশপুর গ্রামের আনারুল ইসলামের পুত্র আসাদুজ্জামানকে জবাই ও কুপিয়ে হত্যা করে ডাকাতরা।
ওই দুই গার্ড খুন হওয়ার প্রেক্ষিতে তাদের পরিবারকে সোনালী ব্যাংকের উদ্যোগে এ ১০লাখ টাকা প্রদান করা হয়।

নিহত জাহাঙ্গীরের পিতাকে ২লাখ টাকা ও স্ত্রী রিমা পারভিনকে ৩লাখ টাকা এবং নিহত আসাদুজ্জামানের পিতাকে ২লাখ টাকা ও স্ত্রী সুমাইয়া খাতুনকে ৩লাখ টাকা নগদ তুলে দেয়া হয়। এসময় নিহতের স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে শাখা ব্যবস্থাপক মনতোষ সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সোনালী ব্যাংকের খুলনা বিভাগীয় জিএম নেপাল চন্দ্র সাহা।
বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যাংকের সাতক্ষীরার ডিজিএম খাঁন শহীদুল ইসলাম, কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, ইউএনও অনুপ কুমার তালুকদার ও ওসি শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলোর স্টাফ রিপোর্টার কল্যাণ ব্যানার্জী, মানবজমিনের জেলা প্রতিনিধি ইয়ারব হোসেন, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি শিক্ষক দীপক শেঠ, সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক রাশেদুল হাসান কামরুল, ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, আলহাজ্ব গোলাম রব্বানি, অধ্যাপক আবু বকর ছিদ্দিক, সাংবাদিক অধ্যাপক কেএম আনিছুর রহমান, এমএ সাজেদ, জুলফিকার আলী, ব্যাংক কর্মকর্তা সদর আলী, রফিক মল্লিক প্রমুখ।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার জেসমিন আক্তার।

Sonali Bank Photo-17






মন্তব্য চালু নেই