মেইন ম্যেনু

ব্রণ দূর করতে কিছু কার্যকরী টিপস

যেকোনো ধরনের ত্বকের সমস্যা সমাধানে লেবুর রস বেশ কার্যকর। আপনার ত্বকে যদি ব্রণ থাকে, তাহলে ঠান্ডা লেবুর রস ব্যবহার করুন। তবে এই ঠান্ডা লেবুর রসের সঙ্গে অন্য একটি উপাদানও ব্যবহার করতে হবে, তাহলেই ব্রণ দূর হবে। জীবনধারা বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ে ব্রণ দূর করতে ঠান্ডা লেবুর রসের সঙ্গে কী কী উপাদান ব্যবহার করবেন, সে বিষয়ে কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

লেবুর রস ও বরফ

প্রথমে মুখে লেবুর রস লাগান। শুকিয়ে গেলে ১০ মিনিট পর এক টুকরা বরফ দিয়ে ঘষে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এতে মুখের ব্রণ দূর হবে।

লেবুর রস ও গোলাপজল

প্রথমে ঠান্ডা লেবুর রস দিয়ে পুরো মুখে ম্যাসাজ করে নিন। ১০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে গোলাপজল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এতে মুখের ব্রণের দাগ দূর হবে খুব সহজেই।

লেবুর রস ও গ্লিসারিন

মুখের যেসব জায়গায় ব্রণ আছে, সেখানে গ্লিসারিন দিয়ে ম্যাসাজ করুন। পাঁচ মিনিট পর ঠান্ডা লেবুর রস দিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

লেবুর রস ও দুধ

দুধ ত্বকের যেকোনো সমস্যা সমাধানে বেশ কার্যকর। প্রথমে ঠান্ডা লেবুর রস দিয়ে পুরো মুখে ম্যাসাজ করুন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা দুধ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

লেবুর রস ও অ্যালোভেরার রস

ত্বকের ব্রণ দূর করতে অ্যালোভেরার রস খুবই উপকারী। ঠান্ডা লেবুর রস দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করে ১৫ মিনিট পর অ্যালোভেরার রস মুখে লাগান। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

লেবুর রস ও টমেটোর রস

প্রথমে মুখে টমেটোর রস দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন। এবার ঠান্ডা লেবুর রস দিয়ে হালকা ম্যাসাজ করে নিন। এর পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। প্রতি সপ্তাহে একবার এভাবে লেবুর রস ও টমেটোর রস ব্যবহার করলে ব্রণের সমস্যা দূর হবে।

লেবুর রস ও ডিমের সাদা অংশ

প্রথমে ডিমের সাদা অংশ পুরো মুখে লাগান। ১০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এবার ব্রণের ওপর ঠান্ডা লেবুর রস লাগান। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ব্রণ দূর হওয়ার পাশাপাশি ত্বক আরো উজ্জ্বল হবে।






মন্তব্য চালু নেই