মেইন ম্যেনু

ব্রেক-আপ নিয়ে বিজ্ঞানীদের চাঞ্চল্যকর তথ্য

মানুষের জীবনের কষ্টগুলোর মধ্যে এই একটি শব্দ অনেক পীড়াদায়ক। অনেকে এই ব্রেক-আপের কারণে জীবনের গতি থামিয়ে দেয়। অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়ে, নিজের অজান্তে অনেক প্রশ্নের খোঁজ করে, কখনও কাঁদে, কখনও বা হতাশার মাঝে হারিয়ে যায়। কিন্তু সামনের দিকে কিভাবে যাওয়া যায়?

আসুন বিজ্ঞানীদের গবেষণার ভিত্তিতে এর উত্তর খুঁজে নেয়া যাক-

১. ব্রেক-আপের পর অনেকে নিজেকে হারিয়ে ফেলে। ‘পারসোনালিটি এন্ড সাইকোলজি বুলেটিন’ এর একটি প্রতিবেদনে জানা যায়, একটি সম্পর্কের মাঝে যে ব্যক্তি বেশি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ থাকে, ব্রেক-আপের পর তার মাঝে বিশাল পরিবর্তন দেখা যায়। তখন নিজেকে একেবারে ভিন্নরকম মানুষ মনে হয়।

২. প্রেম ভাঙ্গার কষ্টে অনেকে খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দেন। অভিজ্ঞদের মতে, আমরা যখন কোন বিষয় নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকি তখন আমাদের শরীরের করটিসল স্তর বৃদ্ধি পায়। এতে শরীরের রক্তচাপের গতিতে পরিবর্তন হয় এবং হজম শক্তি হ্রাস পায়।

৩. ব্রেক-আপের পর সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া মানে একটি আসক্তি থেকে দূরে চলে যাওয়া। বিজ্ঞান অনেক আগেই প্রমাণ করেছে যে, প্রেম একটি আসক্তি রোগের লক্ষণ। ধূমপানকারীরা যেমন সহজেই ধূমপান ত্যাগ করতে পারে না তেমনি প্রেমে পড়ার পর সেই প্রেম ভেঙ্গে গেলে নিজের সঙ্গীকে সহজে ভুলা যায় না।

৪. সোসিয়াল সাইকোলজিক্যাল অ্যান্ড পারসোনালিটি সায়েন্সের আরেকটি গবেষণায় দেখা যায়, যারা ব্রেক-আপের পর নিজ সঙ্গীদের নিয়ে সকলের সাথে আলোচনা করে তারা খুব শীঘ্রই আরেকজন সঙ্গী পেয়ে যান।

৫. ব্রেক-আপের কষ্ট থেকে পরিত্রাণ পেতে মেয়েদের তুলনায় ছেলেদের বেশি সময় লাগে।






মন্তব্য চালু নেই