মেইন ম্যেনু

ব্লগার লুক্স ও স্নিগ্ধাকে জার্মানি গিয়ে হত্যার পরিকল্পনায় আনসারুল্লাহ বাংলা টিম

জার্মান প্রবাসী দুই ব্লগার ওমর ফারুক লুক্স এবং ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধাকে হত্যা করতে জার্মানি ঢোকার পরিকল্পনা করছে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম সদস্যরা।

ব্লগার লুক্স ও স্নিগ্ধাকে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে জার্মান পুলিশ এবং পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে বাসা বদলেরও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সে দেশের নাগরিক এ দু’ব্লগারকে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দিচ্ছে জার্মান পুলিশ বলে জানান তারা।

ব্লগার ওমর ফারুক লুক্স বুধবার (১৫ জুলাই)  বলেন- মুসলিম জঙ্গিরা তাদের জার্মানি থাকার খবর নিশ্চিত হওয়ার পর সেখানকার জঙ্গিদের সহযোগিতায় জার্মানি ঢুকার পরিকল্পনা করছে।

লুক্স জানান- “আনসারুল্লাহ দলের সদস্যরা বাংলাদেশ থেকে ব্রিটেনের মৌলবাদীদের সহায়তায় জার্মানিতে তাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করেছে এবং অনলাইনে বিভিন্নভাবে তাদেরকে অনুসরণ করছে।

ব্লগার ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধা  বলেন- জার্মান পুলিশ তাদেরকে সতর্ক করার পর তাদেরকে নিরাপত্তা দেওয়ার বিষয়টিও নিশ্চিত করেছে।

ব্লগার লুক্স ও স্নিগ্ধা ব্লগ, ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখির জন্য বিভিন্ন সময় হত্যার হুমকি পেয়ে আসছিলেন।

এর আগে বুয়েটের শিক্ষার্থি মো. শফিকুল ইসলাম নামের একজন কয়েক মাস আগে লুক্সকে জার্মানি গিয়ে হত্যা করবেন বলে ফেসবুকে হুমকি দেন এবং এ বিষয়ে  ‘জার্মানি গিয়ে ব্লগার ওমর ফারুক লুক্সকে হত্যার হুমকি বুয়েট ছাত্রের’ শিরোনামে এক সংবাদ প্রকাশ করার পর শফিকুল তার ফেসবুক আইডি ডিএক্টিভ করে রাখে।

সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে কয়েকজন ব্লগারদের প্রকাশ্যে খুন করার পর টুইটার বার্তায় সে সব হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম।

বাংলাদেশে নিকট অতীতে লেখক অভিজিৎ রায়সহ যে কজন অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ‍খুন হয়েছেন, তার পেছনে আনসারুল্লাহ জড়িত বলে মনে করা হয়।

আনসারুল্লাহর সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি সংগঠন আইএসের যোগাযোগ রয়েছে বলে বাংলাদেশের গোয়েন্দাদের ধারণা। বিজ্ঞান লেখক অভিজিৎ রায় মুক্তমনা নামক এক ব্লগ সাইট পরিচালনা করতেন এবং মুক্তমনায় ওমর ফারুক লুক্স ও ফারজানা কবীর খান স্নিগ্ধা লেখালেখি করেন।

মুক্তমনায় লেখালেখি করা অপর ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশকে গত ১২ মে সিলেটে খুন করার পর হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম।






মন্তব্য চালু নেই