মেইন ম্যেনু

ব্লেড দিয়ে পেট কেটে সন্তান বের করলেন গর্ভবতী

ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার যে আরও অনেক উন্নতি দরকার, সে কথা আরও একবার মনে করিয়ে দিল অন্ধ্রপ্রদেশের এক আদিবাসী মহিলা। পরিস্থিতির চাপে পরে সময় মতো হাসপাতালে পৌঁছাতে না পেরে ওই গর্ভবতী আদিবাসী মহিলা রাস্তার মধ্যে ব্লেড দিয়ে তাঁর পেট কেটে জরায়ু থেকে বাচ্চা বের করে আনলেন।

গত ২৩ ডিসেম্বর অন্ধ্রপ্রদেশের কাকিনাড়ার মারেডুমিল্লি মণ্ডলে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে। এর থেকেই ফের প্রকাশ্যে আসল এ বিষয়ে ভারতের বিভিন্ন গ্রামে এখনও স্বাস্থ্য ব্যবস্থার তেমন উন্নয়ন ঘটেনি।

সূত্রের খবর, ৩০ বছরের ওই মহিলা কে. লক্ষ্ণী এবং তাঁর স্বামী সিথানা ডোরা সরকারি হাসপাতালের উদ্দেশে ওই অবস্থায় হাঁটা শুরু করেছিলেন। কিন্তু যে গ্রামে ওই মহিলা থাকতেন, তার থেকে সরকারি হাসপাতালের দূরত্ব ১০ কিলোমিটার এবং সেই পথ অতিক্রম করতে গ্রামের মানুষকে ঘাট, পাহাড়, বড় রাস্তা পার হতে হয়। বড় রাস্তায় গিয়েই অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়। কিন্তু পথেই ওই মহিলার যন্ত্রণা ওঠে এবং তিনি বাধ্য হন ব্লেড দিয়ে পেট কেটে জরায়ু থেকে বাচ্চা বের করতে। পরে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা ব্যবস্থা করে মহিলা ও তাঁর বাচ্চাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে পৌঁছে দেন। আপাতত দুজনের অবস্থাই স্থিতিশীল।

সূত্র: এবিপি






মন্তব্য চালু নেই