মেইন ম্যেনু

বড় ধরনের দুর্নীতি আমাদের চোখে পড়েনি, পড়বেও না’

ঈদের ছুটির পর প্রথম কর্মদিবস সোমবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী থেকে মন্ত্রী হওয়া আসাদুজ্জামান খান।

মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর কোন কোন বিষয়গুলোর উপর জোর দেবেন— জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিমন্ত্রী থাকলেও এ দায়িত্বটা আমি আগে থেকেই পালন করে আসছিলাম। প্রধানমন্ত্রী যে প্রায়োরিটি ফিক্সড করে দিতেন সে অনুযায়ী আমরা কাজ করে আসছি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আগামীতেও পুলিশ যাতে আরও যত্নের সঙ্গে জনগণের সেবা করতে পারে সেদিকে নজর দেব। আমরা পুলিশের সংখ্যা বাড়াচ্ছি।’

‘আমাদের বিভাগ থেকে দুর্নীতি সরানোর জন্য সব ধরনের প্রচেষ্টা নিয়েছি। বড় ধরনের দুর্নীতি আমাদের চোখে পড়েনি, পড়বেও না’ যোগ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘এবার মানুষ সুন্দর, নিরাপদ ও শিল্প কারখানায় কোনো ধরনের অঘটন ছাড়া ঈদুল ফিতর সম্পন্ন করেছে’— এমন দাবি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এর কারণ হল প্রতিবারের মতো এবার অনেক আগে থেকে শিল্প-কারখানার মালিকসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সভা করেছি, যোগাযোগ রেখেছি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কোথায় দায়িত্ব পালন করবে তা নির্ধারণ করে আমরা একটা ছক করেছিলাম।’

‘গতবারও ছক করা হয়েছিল, এবারও করা হয়েছে। তবে যথাযোগ্যভাবে তারা (আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা) তাদের দায়িত্ব পালন করেছে বলে আমি বিশ্বাস করি। কোনো অভিযোগ আমি শুনিনি’ বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা, ছিনতাই, চুরি, রাহাজানি, ডাকাতি এগুলো হয়নি। রাত ২টা পর্যন্ত মহিলা-বাচ্চারা কেনাকাটা করেছে। কোনো এক সময় এটা স্বপ্নের মতো ছিল। এ বছর তাই ঘটেছে। মানুষ সচেতন হয়েছে, মানুষ আস্থা পেয়েছে। মানুষ বিশ্বাস করতে পেরেছে সবকিছু ঠিকঠাক মতো চলবে। সে জন্য রমজান ও ঈদ শান্তিপূর্ণ হয়েছে। আমরা সফল হয়েছি।’






মন্তব্য চালু নেই