মেইন ম্যেনু

বয়স ২০ বছর হওয়ার আগেই জেনে রাখুন এই গোপন কথাগুলো

দিনে দিনে বাড়ে বয়স, পেরোয় সময়। করার ছিল এমন কত কাজ করা হয় না। পরে ভাবি, ইস! তখন যদি করতাম! কারণ দায়িত্ব বেড়ে গেলে সখ থাকলেও অনেক কাজ করা হয় না আমাদের। সময় চলে গেলে আমরা টের পাই যখন কাঁধে কোন দায়িত্ব ছিল না তখনই হতে পারতাম উড়ালপংখী।

যাদের বয়স এখনো ২০ হয় নি তাদের জন্যই এই লেখা। জীবনকে উপভোগ করুন এবং জেনে রাখুন, কাল নয়, পর্ষু নয়। আজই সময়।

ভ্রমণ
একটা বয়সের পর ভ্রমণ মানেই রিল্যাক্স, আরাম, স্ট্রেস থেকে দূরে থাকা। কিন্তু আপনি যখন এখনো পেরোয় নি কুড়ির গন্ডি তখন সদ্য তরুণ মন আপনার ভ্রমণকে নেবে চ্যালেঞ্জ হিসেবে। আপনি যত রোমাঞ্চকে উপভোগ করবেন তত আপনার মন দৃঢ় হবে, কার্যক্ষমতা বাড়বে। তাই এই বয়সটাকে নিন আবিষ্কার করার সময় হিসেবে, নতুনকে জানার সময় হিসেবে।

নিজেকে খুজুন
অন্যের দৃষ্টিভঙ্গী কী, তারা কী করতে চায় সেসবের পেছনে সময় দেবেন না। অন্যের চোখ দিয়ে পৃথিবীকে না দেখে নিজের ভেতরে খুজে দেখুন আপনি কি চান! বড় হতে হতে আমাদের সবারই একটা দৃষ্টিভঙ্গী দাঁড়ায়। অন্যদের মতের ভীড়ে হারিয়ে যায় সেটা। আমরা অন্যের মতকেই ভাবতে শুরু করি নিজের মত। একটু থামুন, নিজেকে খুজুন।

পড়ুন
যত পারা যায় পড়ুন। যা আপনার ভাল লাগে পড়তে থাকুন। জানুন নানা রকম করে আপনার চারপাশকে। শুধু একই রকম বিষয়ে নয়, পড়ুন বিচিত্র বিষয়ে। বই পড়ুন, মানুষকে জানুন, জানুন জীবনকে।

টিভি দেখা বন্ধ করুন
হ্যা, টিভি দেখা আপনার চিন্তাশক্তিকে পঙ্গু করে দেয় দিনে দিনে। টিভি দেখা বন্ধ করুন, আজই।

ক্যারিয়ার
সে তো ভবিষ্যতের ভাবনা। আজকের কথা ভাবুন। আজ পড়াশোনা করছেন, রেজাল্ট ভাল করুন। কোন কিছু নিজ উদ্যোগে তৈরি করছেন, সমস্ত শ্রম দিয়ে তৈরি করুন সেটা। কালকের পথ এখানেই কখন তৈরি হয়ে যাবে আপনি হয়ত টেরও পাবেন না।

বিশ্বাস করুন
যতক্ষণ না একজন মানুষ অবিশ্বাস করার মত কোন কাজ করছে ততক্ষণ তাকে বিশ্বাস করুন। হ্যাঁ, সচেতন হন। বোকার মত ক্ষতির সম্মুখীন হয়েও বিশ্বাস করে যাবেন না। কিন্তু সন্দেহপ্রবণ হবেন না।

মানুষ
মানুষ যেমন আপনাকে শান্তি দেবে, তেমনি মানুষই হয়ত আপনার সবচেয়ে বড় শত্রু হবে। এর মাঝে কিছু মানুষ থাকবে যারা আপনার জীবনের অমূল্য সম্পদ হইয়ে উঠবে। খুজে নিন এইসব মানুষকে। জেনে রাখুন, আপনার অনেক বন্ধু থাকবে হয়ত। কিন্তু যখন তাদেরকে খুব প্র্যোজন তখন হয়ত কেউ পাশে থাকবে না। পাশে থাকবে অল্প কিছু মানুষই।

হারতে শিখুন
হেরে যাওয়াকে সবাই মেনে নিতে পারে না। কিন্তু মেনে নেওয়া জরুরি। সব সময় আমরা জিততে পারব না। কখনো হারব আবার কখনো জিতে যাব ঠিক। জীবন কোন প্রতিযোগিতা নয়। একে জয়-পরাজয় দিয়ে মাপবেন না। বরং যাই ঘটুক সেখান থেকেই নিন ইতিবাচক অংশটুকু। সেই অভিজ্ঞতা পরে কাজে দেবে।






মন্তব্য চালু নেই