মেইন ম্যেনু

ভাগ্য নিয়ে জালিয়াতি, অবশেষে বিচারের কাঠগড়ায়

আজব দুনিয়ার আজব সব কান্ড। কতো কি যে ঘটে এই দুনিয়ায়! এবার ভাগ্য বলে বিপাকে পরলেন এক নারী। পেনসিলভানিয়া এই নারীকে, ভাগ্য জালিয়াতির অভিযোগে বিচারেরকাঠগড়ায়দাড়াতে হল। সে মানুষদের ভাগ্য গণনা করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। এক বার ভাগ্য গণনার জন্য সে প্রতি ক্লাইন্টের নিকট থেকে দশ হাজার ডলার পর্যন্ত পেমেন্ট নিয়ে থাকে।

এই মহিলা তার ক্লায়েন্টদের বোঝাতে চেষ্টা করে যে এই অর্থের বিনিময়ে তার জীবনের “অন্ধকার মেঘ” দূর হয়ে যাবে। তার এই কাজের জন্য সে মানুষকে দিয়ে তেল, পারফিউম, মোমবাতি এবং স্ফটিক ইত্যাদি দ্রব্য সামগ্রীও কিনিয়ে থাকে।

পেনসিলভানিয়ার ফিলাডেলফিয়া শহরের ভাগ্য পরীক্ষক, April Uwanawich, ৩৮ মানুষের ভাগ্যপরীক্ষার জন্য ৫৫টি শব্দ গণনা করে। এবং মানুষের কাছ হতে মোটা অংকের টাকা গ্রহণ করে। তাই এবার তার নামে কোর্টে অভিযোগ উঠেছে সে ছলচাতুরি দ্বারা বেআইনীভাবে মানুষের কাছ থেকে অর্থ আত্মসাৎ করে।

পুলিশি অভিযোগ অনুযায়ী, Uwanawich ২০০৯ সালে জেনিফার গার্ডিনার নামের একটি কনভেনিয়েন্স স্টোর এ অভিগমন এর জন্য অভিযুক্ত হয়। এখন তাকে ভাগ্য গণনা সংক্রান্ত অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে অবশ্য এটা প্রথমবার নয়! এর আগে তিনি চেস্টার কাউন্টি ভাগ্য গণনা জালিয়াতির জন্য দুই বার গ্রেপ্তার হয়েছে।

আদালতের রেকর্ড মতে, তিনি ২০০৯ সালে একজন মহিলার অভিশাপ সরানোর কথা দিয়ে জন্য সেই নারীর থেকে ২৩০০০ চুরি করে। পরে অবশ্য সে এটা আদালতে স্বীকারও করে নেয়।

এবার আপনাদের উদ্দেশ্যে বলছি, এমন ভুয়া গণক কিন্তু আমাদের চারপাশেও অনেক আছে। এসব গণকের ভুলভাল কোথায় বিভ্রান্ত হবেন না। সাবধানে থাকুন ও এদের খুঁজে বের করে পুলিশে সপর্দ করুন। -সূত্র: লোলওয়াট।






মন্তব্য চালু নেই