মেইন ম্যেনু

ভাঙ্গায় দেয়াল ধ্বসে ব্যবসায়ীর শিশুপুত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার থানা সংলগ্ন ফিডার রোডে দেয়াল ধসে নীচে চাপা পড়ে এক ব্যবসায়ীর শিশু পুত্র আব্দুল্লাহর (৪) মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার শেষ রাতে ঢাকার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু ঘটে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধার পরে বাসা থেকে মায়ের সঙ্গে বের হয়ে শিশু পুত্র আব্দুল্লাহ বাজারে যাওয়ার পথে তার উপর দেয়ালটি ধসে পড়ে। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশু আব্দুল্লাহকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে ভাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ফরিদপুর ট্রমা সেন্টারে নেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। ঢাকার একটি হাসপাতালে নেয়ার পরই তার মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহত আব্দুল্লাহ ভাঙ্গা থানা সংলগ্ন কাপুড়িয়া সদরদী গ্রামের বাসিন্দা ও ভাঙ্গা বাজারের বিশিষ্ট মুদি ব্যবসায়ী ইমদাদুল মুন্সির একমাত্র পুত্র।

এ ব্যাপারে নিহতের চাচা অপর মুদি দোকান ব্যবসায়ী আকিদুল মুন্সি জানান, বাসার সামনেই একটি সরু রাস্তা। তার একদিকে একটি বিল্ডিং এর ফাউন্ডেশনের কাজ চলছে, অপর পাশে পুরাতন একটি দেয়াল। সেই দেয়ালের ওপাশ ঘেষে বালুর বিশাল স্তুপ রাখা ছিল। সেই বালুর চাপেই দেয়ালটি ধ্বসে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এভাবে যারা কাজ করে তাদের সচেতন হওয়া উচিৎ। আমাদের কারো উপর কোন অভিযোগ নাই। তবে ভাঙ্গা হাসপাতালের ডাক্তাররা অবহেলা করেছে। ডাক্তারা যখনই শোনে রোগীর বাড়ী হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় তখনই তারা রোগীর চিকিৎসা না করে ফরিদপুর রেফার্ট করে দেন। আমরা সময়মত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হয়েছি।






মন্তব্য চালু নেই