মেইন ম্যেনু

ভাতঘুম কেন গুরুত্বপূর্ণ?

দুপুরে ঘুমানোর সুযোগ তৈরি করা সবার পক্ষে সম্ভব হয় না। কাজের ব্যস্ততা, দ্রুত কাজ শেষ করার তাড়া এবং বাড়তি চাপের কারণে মানুষ কোনো কিছুর করার জন্য খুব কমই সময় পায়। তবে কম হোক আর বেশি হোক দিনে একটু ঘুমিয়ে নেয়া উচিত। অনেক বিশেষজ্ঞ একমত পোষণ করেছেন, দিনে অল্প সময়ের জন্য পাওয়ার ন্যাপ বা ভাতঘুম স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

– ১৫ থেকে ২০ মিনিটের পাওয়ার ন্যাপ আপনার শক্তির মাত্রাকে উজ্জীবিত করবে। মনকে শান্ত এবং পুনরায় বিন্যাস করতে কয়েক মিনিটের ঘুমই যথেষ্ট।

– যারা ইনসোমনিয়া বা অনিদ্রায় ভোগেন তাদের জন্য দিনের ঘুম পূর্ণ ঘুমেই রূপান্তরিত হয়। তাই রাতে ঘুমের সমস্যা থাকলে দিনে না ঘুমানোই ভালো।

– বেশ কয়েকটি গবেষণায় বলা হয়েছে, পাওয়ার ন্যাপ আপনার একাগ্রতা এবং তৎপরতা বাড়াবে। তাই গুরুত্বপূর্ণ কোনো কাজ বা ফোন কল করার আগে কয়েক মিনিট ঘুমিয়ে নিন। এতে কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

-কয়েক মিনিটের ঘুম আপনার মনোবল চাঙা করবে এবং অবসাদ কমাবে।

-পাওয়ার ন্যাপ নেয়ার জন্য স্থান একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আশপাশের মানুষের বিরামহীন কথাবার্তা এবং কোলাহল আপনার ঘুমে ব্যাঘাত সৃষ্টি করতে পারে। তাই নীরব কোনো জায়গা পছন্দ করুন।

-গবেষণায় বলা হয়েছে, গাড়ি চালানোর সময় আপনার তন্দ্রা বা ঝিঁমুনি ভাব দূর করবে পাওয়ার ন্যাপ। অধিকাংশ দুর্ঘটনা ঘটে ড্রাইভিংয়ের সময় ঘুমভাব চলে আসলে।

-বলা হয়ে থাকে, পাওয়ার ন্যাপ চাপ কমায় এবং হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখে।






মন্তব্য চালু নেই