মেইন ম্যেনু

ভাত নরম হওয়ায় শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন

শিশু নির্যাতন যেন দিন দিন বেড়েই চলছে। একের পর এক নতুন ঘটনার জন্ম নিচ্ছে।

প্রতিনিয়ত নির্যাতনের শিকার হচ্ছে শিশু গ্রহকর্মীরা। মঙ্গলবার রাজধানীতে নির্যাতনের শিকার হল ৯ বছরের শিশু পলি। ভাত নরম হওয়ার অজুহাতে পলির হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

নির্যাতিত শিশুকে ঢাকা থেকে নরসিংদীতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পরে তাকে নরসিংদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি মহিলা ওয়ার্ডে সার্জারি বিভাগের ৮১ নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হাসপাতালে দেখা গেছে, শিশুটির মাথার চুল কাটা। শরীরে একাধিক স্থানে নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে। সেখানে পলি জানায়, প্রতিদিন বিভিন্ন অজুহাতে তাকে নির্যাতন করা হতো। মঙ্গলবার ভাত নরম হওয়ায় তাকে লাঠি দিয়ে পেটানো হয়।

জানা যায়, গত জানুয়ারিতে নরসিংদীর চরমরজাল গ্রামে মাহমুদা নামে এক নারী তার আত্মীয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের চারতলা গ্রামের কালা কাজী ভূইয়ার ছেলে মামুন ভূইয়ার ঢাকার বাসায় কাজের জন্য পলিকে দেয়। ওই বাসায় মামুন ভূইয়ার স্ত্রী চাদনী আক্তার নানা অজুহাতে পলিকে নির্যাতন করতো।

পলির বাবা রিকশাচালক সফিকুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার রান্না করার পর ভাত নরম হয়েছে-এই অজুহাতে পলিকে নির্যাতন করা হয়। তাকে লাঠি দিয়ে বাম হাত ও ঘাড়ে আঘাত করা হয়েছে। এতে আমার মেয়ের বাম হাত ভেঙে গেছে।

সফিকুল ইসলাম বলেন, আমি রিকশা চালিয়ে কোনো রকমে সংসার চালায়। অভাবের কারণে মেয়েকে মাহমুদার কথায় তার আত্মীয় বাসায় দিয়েছিলাম। আজ আমার এ শিশু মেয়েটিকে নির্যাতন করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।






মন্তব্য চালু নেই