মেইন ম্যেনু

ভারতের বিপক্ষে খেলবেন স্পিনার জুবায়ের

নির্বাচকদের নজরে ছিলেন কি না, তা বলা মুশকিল! কিন্তু কোচ ও অধিনায়কের পরিকল্পনায় আছেন তিনি। বলছি বাংলাদেশের একমাত্র লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন লিখনের কথা। জুবায়েরকে ‘বিস্ময়কর বালক’ বলে আখ্যায়িত করেছেন জাতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক রকিবুল হাসান। জুবায়েরকে বিশ্বকাপের একাদশেও দেখতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বিশ্বকাপ তো দূরের কথা, ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষেও খেলা হয়নি এই লেগ স্পিনারের।

গত বছরের শেষ দিকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩ টেস্টে ১১ উইকেট নিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন লিখন। স্পিন, গুগলি আর জিপারে প্রতিপক্ষ শিবিরে বেশ ভালোই দাপট দেখান লিখন। প্রতিভা যে আছে তা জানাতে সময় নেননি তিনি। কিন্তু অভিজ্ঞতার কারণে অনেকটা আড়ালেই চলে যেতে হয় ১৯ বছর বয়সি তরুণকে। এক কথায়, ধুমকেতু হয়ে এসেছিলেন লিখন, কিন্তু ধ্রুবতারার জায়গাটি নিতে পারেননি!

তবে তার প্রতিভা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করছেন না কেউ। নিয়মিত ক্রিকেটের ২২ গজে খেলতে না পারার কারণেই লাইমলাইটের ছিলেন না ঢাকার এই ক্রিকেটার। সামনেই ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের একমাত্র টেস্ট ম্যাচ। ভারতীয় ক্রিকেট দলের ব্যাটিং লাইনআপ বিশ্বসেরা এবং স্পিনে তারা বেশ সাবলীল। সেই ব্যাটিং লাইনআপের বিপক্ষে জায়গা হয়েছে তিন টেস্ট খেলা লিখনের। কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম লিখনকে দলে পেতে জোর দাবি করেছেন। কোচ ও অধিনায়কের ভারত বধের পরিকল্পনার অনেকটা অংশ জুড়েই আছেন লিখন।

আগামী ১০ জুন ভারতের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট খেলতে ফতুল্লায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ। কোনো চমক ছাড়াই মূল একাদশে দেখা যেতে পারে লেগ স্পিনার লিখনকে। তা অনেকটা বলেই দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ, ‘লিখনকে দলে রাখার জন্যে কোচ ও অধিনায়কের পক্ষ থেকে জোর দাবি করা হয়েছিল। লিখনকে নিয়ে কোচ ও অধিনায়ক পরিকল্পনা করছে। তাই ওকে দলে নেওয়া হয়েছে।’ তবে লিখন নির্বাচকদের নজরে ছিলেন না এমন কোনো কথা ফারুক আহমেদ বলেননি। দলে জায়গা পাওয়া লিখনের প্রতিভা দেখার অপেক্ষায় তিনি, ‘ওকে নেওয়া হয়েছে দলের জন্যই। আশা করি ওকে খেলানো হবে। কারণ না খেলালে ওর প্রতিভাটা কোন পর্যায়ের, তা আমরা বুঝব না।’






মন্তব্য চালু নেই