মেইন ম্যেনু

ভারতের স্কুলশিক্ষার্থীদের মধ্যে আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে যৌনরোগ

ভারতে স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে যৌনরোগ আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। আরো আশঙ্কার বিষয় হলো- যৌনমিলন বাহিত এসব রোগে আক্রান্তদের গড় বয়সও অনেক কম।

স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় এই তথ্য উঠে এসেছে। সমীক্ষা বলছে, যৌনমিলন বাহিত রোগের প্রকোপ ক্রমেই বাড়ছে ভারতের স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে। এমনকি প্রথমবার যৌনমিলনের অভিজ্ঞতা নেয়াদের গড় বয়সও ১৩ বছর!

সমীক্ষা প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, যৌনমিলন বাহিত রোগ দ্রুত হারে বাড়ছে ১২ থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে। ১৫ হাজারের বেশি ভারতীয় টিনেজারের মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, ছেলেরা ১৩ ও মেয়েরা ১৪ বছর বয়সেই যৌনমিলনের অভিজ্ঞতা নেয়। জাতীয় পরিবার স্বাস্থ্য সমীক্ষার রিপোর্ট বলছে, ভারতে ৬.৩ শতাংশ স্কুল পড়ুয়াই স্বীকার করেছে, তাদের অন্তত একবার যৌনমিলনের অভিজ্ঞতা রয়েছে। এ নিয়ে চিকিৎসকরাও বেশ চিন্তিত।

ফ্যামিলি প্ল্যানিং অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার সদস্য অমিতা ধানু বলেন, ভারতের অল্পবয়সীদের মধ্যে যৌনমিলনের প্রবণতা ব্যাপক হারে বাড়ছে। বিশেষ করে স্কুলে পড়ার সময়ই তারা যৌনতায় লিপ্ত হচ্ছে। এমনকি অনেক স্কুল পড়ুয়া কলগার্লকেও ফোন করছে। যার জেরে এই সব ছাত্রদের মধ্যে যৌনতাবাহিত রোগের প্রকোপও বাড়ছে।

এই পরিস্থিতির কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, স্কুল পড়ুয়াদের মধ্যে যৌনশিক্ষা ঠিকমতো পৌঁছাচ্ছে না। ভারতের মাত্র ৬.২ শতাংশ স্কুল পড়ুয়া শিক্ষকের কাছ থেকে যৌনতার বিষয়ে তথ্য পায়। ৬ শতাংশ পড়ুয়া মায়ের কাছে শিক্ষা পায়। কিন্তু ৫৭ শতাংশ পড়ুয়াই যৌনশিক্ষা পাচ্ছে ইন্টারনেট থেকে। আর ইন্টারনেটে নানাবিধ তথ্য তারা বুঝতেও পারছে না। আর ভুল বোঝার কারণে ব্যাপক সমস্যার মুখে পড়ছে। সূত্র: জি-নিউজ






মন্তব্য চালু নেই