মেইন ম্যেনু

ভারতে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ

উগ্র-মতবাদ প্রচারের অভিযোগে ভারতের বিতর্কিত ইসলামি বক্তা জাকির নায়েকের পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার। দেশটির জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভির অনলাইনে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, জাকির নায়েকের বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ার বহু তরুণ জঙ্গিবাদে ঝুঁকছে বলে অভিযোগ আছে। বাংলাদেশের গুলশানে অভিজাত রেস্টুরেন্ট হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারীদের কয়েকজন জাকির নায়েকের অনুসারী ছিলেন বলে খবর প্রকাশ হয়েছে। জাকির নায়েকের বক্তব্যেই তারা জঙ্গি তৎপরতায় উদ্বুদ্ধ হয়েছে-এমন অভিযোগ আসার পর এই বিতর্কিত ইসলামি বক্তা অবশ্য বলেছেন, তার কথায় কেউ জঙ্গি তৎপরতায় উদ্বুদ্ধ হতে পারে না। তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও তার অনুসারী আছেন, আর্টিজান হামলায় জড়িতদের মধ্যেও কেউ কেউ তা থাকতে পারেন, তবে এতে নিজের দায় থাকে না বলেও দাবি করেছেন জাকির নায়েক।

আর্টিজানে হামলার পরই জাকির নায়েকের বিতর্কিত বক্তব্য নিয়ে আবার আলোচনা শুরু হয়। এই বক্তা তরুণদের জঙ্গি তৎপরতার দিকে ধাবিত করছেন কি না- তা যাচাইবাছাই শুরু হয় ভারতেও। আর দেশটির সরকার জানায়, বাংলাদেশ অনুরোধ করলে তার দেশ থেকে জাকির নায়েককে নিষিদ্ধ ও পিস টিভি বন্ধের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তবে বাংলাদেশ আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিষয়ে কোনও অনুরোধ না জানালেও এর আগেই ভারত সরকার পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে কেবল অপারেটরদের। বিতর্কিত ও উগ্র মতবাদ প্রচারের অভিযোগে সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে পিস টিভি ও জাকির নায়েকের বক্তব্য প্রচার আগেই নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

জঙ্গিবাদে উৎসাহ যোগানের অভিযোগ নিয়ে এরইমধ্যে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিজ রাজ্য মহারাষ্ট্র সরকার। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে সরাসরি তরুণদের আইএসে যোগ দিতে উদ্ধুদ্ধ করার অভিযোগ উঠেছে। জাকির নায়েকের বক্তৃতায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে চার তরুণ সম্প্রতি আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসে যোগ দিয়েছে বলে দেশটির সরকার প্রমাণ পেয়েছে বলেও জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এদের মধ্যে একজন হলেন আরিব মাজিদ। তাকে আরও তিনিজন সঙ্গীসহ আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্ততার প্রমাণ থাকায় গত বছর ভারতের শ্রীনগর থেকে গ্রেপ্তার করে দেশটির জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা। তাদের জেরার মুখে আরিব স্বীকার করেন, জাকির নায়েকের ইসলামি উদ্ধুদ্ধকরণ বক্তব্য শুনে তারা আইএসে যোগ দিয়েছিল।

পিস টিভি ভারতসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সম্প্রচার হলেও এর আর্থ স্টেশন সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে।

তবে ভারত সরকার পিস টেলিভিশনের সম্প্রচার বন্ধ হলেও এটি অনলাইনে এখন চালু রয়েছে। এনডিটিভি জানিয়েছে, ভারত সরকার ক্যাবল অপারেটরদের পিস টিভি বন্ধের নির্দেশ দিলেও কিছু কিছু অপারেটর টিভিটি অবৈধভাবে চালু করেছে। এসব অপারেটর পিস টিভির কনটেন্ট ডাউনলোড করে তা প্রচার করছে।

ভারত সরকার পিস টিভি বন্ধের পাশাপাশি ইউটিউবে জাকির নায়েকের ইসলামি বক্তব্য সরিয়ে দেয়ার জন্য গুগল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ সরকারের একটি সূত্র জানিয়েছে, দেশে বিতর্কিত এই চ্যানেলটির সম্প্রচার বন্ধ করার বিষয়েও আলোচনা চলছে। এ বিষয়ে দুই এক দিনের মধ্যে সরকারি ভাষ্য পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা। তবে এ বিষয়ে নাম প্রকাশ করে কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই