মেইন ম্যেনু

ভারতে মুসলমান লোকের সংখ্যা বাড়ছে

ভারতে সীমিত হারে ক্রমান্বয়ে মুসলিম জনস্যংখ্যা বাড়ছে। ২০০১ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত বিগত ১০ বছরে হিন্দু ধর্মীয় জনসংখ্যা শতকরার হিসেবে ৮০ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। আর বেড়েছে মুসলমান ধর্মের লোকসংখ্যা। এবারই প্রথমবারের মতো এমনটা ঘটলো বলে ভারতের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য।

বিগত এক বছর যাবৎ এ সংক্রান্ত জরিপটি পস্তুত করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। আজ মঙ্গলবার সেটা দেশটির ধর্মীয় সম্প্রদায়ের নিকট তুলে ধরে মন্ত্রণালয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রস্তুতকৃত জরিপের তথ্যানুযায়ী, ভারতের ১২১.০৯ কোটি জনসংখ্যার দেশে বিগত এক দশকে অর্থাৎ ২০০১ থেকে ২০১১ সালের মধ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকসংখ্যা শতকরা ০.৮ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ১৪.২ শতাংশ।

অপরদিকে, হিন্দু ধর্মের লোকসংখ্যা ২০০১ থেকে ২০১১ সালে মধ্যে কমেছে ০.৭ শতাংশ। বর্তমানে ভারতে ৭৯.৮ ভাগ হিন্দু লোকের বসবাস। সেখানে শিখ ধর্মের অনুসারী রয়েছে ১.৭ ভাগ। তবে আগের তুলনায় শিখ ধর্মের লোকসংখ্যাও কমেছে ০.২ শতাং। গত এক দশকে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের লোকসংখ্যা ০.১ শতাংশ হারে কমে দাঁড়িয়েছে শতকরা ০.৭ ভাগ।

তবে জরিপ মতে খ্রিস্টান ও জৈন ধর্মের লোকসংখ্যার অনুপাতে তেমন কোন পরিবর্তন সাধিত হয় সেখানে নি। বর্তমানে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী জনগোষ্ঠীর শতকরা হার ২.৩ ভাগ এবং ০.৪ ভাগ জৈন ধর্মের লোকের বসবাস।

দেশটির আসাম এবং পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ইসলাম ধর্মের লোকসংখ্যা বেশি পরিমাণে বেড়েছে বলে জরিপে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। তবে, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হচ্ছে, রাজ্য দুটিতে বাংলাদেশ থেকে অবৈধ অভিবাসীদের অনুপবেশের কারণেই আসাম ও পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকসংখ্যা বেড়েছে এই এক দশকে।

সূত্র: দ্যা হিন্দুস্তান টাইমস।






মন্তব্য চালু নেই