মেইন ম্যেনু

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তাসলিমা নাসরিনের মন্তব্য

এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি আসরে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ নিয়ে মন্তব্য করেছেন বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। এ নিয়ে তোলপাড় চলছে অনলাইনে।

ভারতে নির্বাসিত তসলিমা নাসরিন তার টুইটার পেজে লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ পাকিস্তানকে সমর্থন করা মানে ধর্ষিতা তার ধর্ষককে সমর্থন করার মতো।’

শনিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ চলার সময় টুইটারে এই মন্তব্য করেন তসলিমা নাসরিন। এ নিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। টুইটের পক্ষে-বিপক্ষে অসংখ্যা মন্তব্য পড়েছে।

টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া তসলিমার এই মন্তব্য সম্পর্কে অনেকে লিখেছেন, যথাযথ বলেছেন তসলিমা। আবার অনেকে বলেছেন, নজরকাড়ার জন্য আবারও কামড় বসিয়েছেন তিনি।

তসলিমার মন্তব্যে যেসব প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে, তার কয়েকটি এখানে দেওয়া হলো। সম্প্রতি নির্বাসিত ও অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী বাংলাদেশি ব্লগার শুভজিৎ ভৌমিক বলেছেন, তসলিমা সঠিক বিশ্লেষণ করেছেন। মুক্তিযুদ্ধে আমাদের ২ লাখের বেশি নারী ধর্ষিত হয়েছে। ক্ষমা না চাইলেও এ নিয়ে পাকিস্তানের কোনো গায়ে জ্বালা নেই। এ আমাদের জন্য লজ্জার বিষয়। মানুষ হয় ইতিহাস ভুলে গেছে না হয় সজ্ঞানে পাকিস্তানকে সমর্থন করছে, যে পাকিস্তান আমাদের মা-বোনদের ধর্ষণ করেছিল।

শুভজিৎ ভৌমিককের কাছে জানতে চাওয়া হয়- কোন দেশকে সমর্থন করতে হবে এ বিষয়ে ধর্ম বড় ভূমিকা রাখছে, না কি? তখন তিনি বলেন, ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ হলে অনেকের কাছে মুসলিম ভ্রাতৃত্ব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। আবার অনেকে কাছে তা নয়। তারা শুধুই পাকিস্তানকে সমর্থন করে। কোনো কিছুকে ভালোবাসতে নির্দিষ্ট কারণে দারকার পড়ে না। যেমন কোনো যোগসূত্র না থাকা সত্ত্বেও লোকজন ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনাকে পছন্দ করে।

জার্মানিতে অবস্থানরত বাংলাদেশি ব্লগার অনন্যা আজাদ পাকিস্তানকে সমর্থন করার খবরে মর্মহত হয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘দুই বছর আগে আমি মিরপুর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যকার একটি ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলাম। আমি চরম মর্মাহত হয়েছিল, সেখানে প্রায় ৩০ শতাংশ লোক পাকিস্তানকে সমর্থন করছে। আমি সত্যিই খুব লজ্জিত ছিলাম। সে দিক থেকে এক অর্থে আমি তসলিমার স্ট্যাটাসকে সমর্থন করছি।’

লন্ডনে অবস্থানরত আরেক বাংলাদেশি ব্লগার এসডি গুপ্ত তসলিমার টুইটার মন্তব্য নিয়ে ভিন্নমত দিয়েছেন। তার মতে তসলিমা নজর কাড়তে চেয়েছেন। তার মন্তব্যকে আমি খুব গুরুত্ব দিচ্ছি না। তা ছাড়া বাংলাদেশের খুব কম লোক এখন পাকিস্তানকে সমর্থন করে। তসলিমা খবরের শিরোনাম হতে চেয়েছেন শুধু।

‘চিলড্রেন অব ওয়ার’ সিনেমার পরিচালক ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক মৃত্যুঞ্জয় দেবরাত তসলিমাকে সমর্থন করে বলেছেন, যখন বাংলাদেশিরা পাকিস্তানকে সমর্থন করে, তখন খুব কষ্ট হয়।

এ রকম আরো অনেক মন্তব্য এসেছে তসলিমার টুইটের পর।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।






মন্তব্য চালু নেই