মেইন ম্যেনু

ভালোবেসে দেশ ছেড়েও শেষ রক্ষা হলো না

একে-অপরকে ভালোবেসে ভেঙেছিলেন কাঁটাতাঁর; বিয়ে করে ভারত থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসেও শেষ রক্ষা হলো না এক প্রেমিক যুগলের। বেরসিক পুলিশ আটক করে তাদের জেলে পাঠিয়েছে।

আটক প্রেমিকা শ্রীমতি মামুন বর্মণ (১৭) শিলিগুড়িহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ও জলপাইগুড়ি জেলার আলীপুর দুয়ার থানার যোগেন্দ্র নগর গ্রামের শ্রী চন্দন বর্মণের কন্যা। আর প্রেমিক অভিজিৎ বর্মণ (২০) একই গ্রামের শ্রী অখিল চন্দ্রের পুত্র বলে জানা গেছে।

মেয়েপক্ষ বিয়েতে রাজি না হওয়ায় প্রায় ১ মাস আগে তারা বাড়ি থেকে পালিয়ে ভারতে কুচবিহারের দিনহাটা থানার ভালুকা হাটিয়ামারী গ্রামে অভিজিতের ভগ্নিপতি কাজল মোদকের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখানে তারা বিয়েও সম্পন্ন করে। কিন্তু মেয়ের পিতা অভিজিতের নামে মামলা করলে গত রোববার তারা ভগ্নিপতি কাজল মোদককে সঙ্গে নিয়ে বাঁশজানী সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

তারা ভূরুঙ্গামারী সদরে আসার পথে পাগলারহাট নামক স্থানে এলাকাবাসী তাদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে গতকাল কুড়িগ্রাম জেলে পাঠায়। ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই