মেইন ম্যেনু

ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ, ফুটপাতে ঘুমাবে না মানুষ : প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ করে ভিক্ষুকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার জন্য সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে ফুটপাতে ঘুমানো ছিন্নমূল মানুষদের গ্রামে ফিরিয়ে নিয়ে বাসস্থান ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

শনিবার রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সমাজ সেবা অধিদপ্তর এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে দেশের হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে নেয়া তার সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে বলেন, ‘উন্নয়নের এই ধারা সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে।’

ভিক্ষাবৃত্তি একটি হীন কাজ- মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ ভিক্ষা করতে পারবে না।’ ভিক্ষুকদের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘ফুটপাতে মানুষ বসবাস করবে কেন? তাদের বাঁচার অধিকার রয়েছে।’ যারা ফুটপাতে বসবাস করছে তাদের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে বিনামূল্যে ঘরবাড়ি নির্মাণ ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেয়ারও নির্দেশ দেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘বেকার যুবকেরা যাতে কাজ করতে পারে সেজন্য তার সরকার কর্মসংস্থান ব্যাংক গঠন করে দিয়েছে। সেখান থেকে তারা বিনা জামানতে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারে। নিজেরা কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে সমাজে কেউ কারো বোঝা হবে না। সবাই নিজের পায়ে দাঁড়াবে। সবাই কাজ করে খাবে। সরকার মানুষের জন্য সেই কাজের সুযোগ করে দিচ্ছে।’ তার সরকার ২০২১ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার ১৪ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে কাজ করে যাচ্ছে বলেও যোগ করেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই