মেইন ম্যেনু

ভিখারিনীর ঘরে বস্তাভর্তি টাকা!

ভিক্ষা করে জীবন চালাতেন বরিশালের আলেয়া (৬৫)। মাসে ৬০০ টাকা ভাড়ায় বরিশাল সদরের বটতলা এলাকায় একটি রুমে একাই থাকতেন এই বৃদ্ধা।

বুধবার তিনি মারা যাওয়ার পর স্বজনরা তার বাসায় গিয়ে কয়েক বস্তায় টাকা দেখে সবাই হতবাক হয়ে যান। পরে ভিখারিনীর বাসায় জড়ো হনঅনেকে।

জানা যায়, বৃদ্ধার ঘরে এই সময় ঘরে ১০টি বস্তায় টাকা-পয়সা, ধান-চাল রাখার ৫০ কেজি চটের বস্তা এবং কয়েকটি খরচের ব্যাগ পাওয়া যায়। বস্তায় এক টাকা, দুই টাকা থেকে শুরু করে ১০০-৫০০-১০০০ টাকার নোটও ছিল। তবে বেশির ভাগ টাকাই ছোট নোট ও মুদ্রা। উদ্ধার করা হয় ৭০ কেজি চাল।

পরে এলাকাবাসী ও স্বজনরা দীর্ঘ সময় ধরে টাকা গুনেন। খুচরা টাকা-পয়সা বেশি থাকায় অনেক সময় লাগে। গুণে তারা দেখতে পান সেখানে ৯৫ হাজার ২০০ টাকা রয়েছে।

পরে সেই টাকার কিছু অংশ স্থানীয় মসজিদ, মাদ্রাসা এবং মাহফিলের জন্য দান করা হয়। বাকি টাকা দুই ভাইকে বুঝিয়ে দিয়েছে স্থানীয়রা।

মৃত বৃদ্ধার ভাই এনায়েত হোসেন সাংবাদিকদের জানান, গত সোমবার সকালে বরিশালের শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় হাসপাতালে মারা যান আলেয়া বেগম। পরে স্বজনরা তার লাশ দাফন করেন। বুধবার দুই ভাই যান তাদের বোনের ভাড়া বাসার মালামাল নিতে। গিয়ে বস্তায় ভরা টাকার সন্ধান পাই।

ভিখারিনির গ্রামের বাড়ি ছিল বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরাদীতে।






মন্তব্য চালু নেই