মেইন ম্যেনু

ভিনদেশি সাবেকরা বলছেন, মুস্তাফিজই সেরা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের ফাইনালে খেলতে পারবেন তো মুস্তাফিজ? সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ দলে শনিবারও (২৮ মে) সেই শঙ্কা বিরাজ করছে। হঠাৎ করেই বাংলাদেশের এই তরুণ পেসারের ইনজুরি আইপিএলের দল হায়দ্রাবাদের প্রথম শিরোপা স্বপ্নে যেন বিনা মেঘে বজ্রপাতের হয়ে এসেছে। দলটির ভারতীয় পেসার ভুবনেশ্বর কুমার তো কোনো রাখঢাক না করে বলেই দিয়েছেন, ‘মুস্তাফিজকে মাঠে দেখতে না পাওয়াটা আমাদের জন্য অবশ্যই দুর্ভাগ্যের বিষয়।’

ভুবনেশ্বর কেন এমনটা বলেছেন এর কারণও স্পষ্ট। মুস্তাফিজের অভাব যে পূরণ হওয়ার নয়। নিউজিল্যান্ডের সেরা পেসার বলে যে ট্রেন্ট বোল্টকে নিয়ে এত হৈ চৈ বিশ্ব ক্রিকেটে, সেই তিনিও তো দিল্লির মাঠে শুক্রবার রাতে মুস্তাফিজের অভাব পূরণ করতে পারননি। ফাইনালে তাই মুস্তাফিজকে একাদশে পাওয়ার আশায় প্রহর গুণছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ।

এদিকে, মুস্তাফিজ বন্দনায় সামন্যতম ছন্দপতন ঘটেনি আইপিএলের শেষ প্রান্তে এসেও। বাংলাদেশের এই তরুণ পেসারের ভূয়সী প্রশংসা চলছে চারদিকে। পারফরম্যান্সের আলোকে মুস্তাফিজ বর্তমানে ক্রিকেট বিশ্বের ঠিক কোন অবস্থানে রয়েছেন সেই বিষয়েও চলছে চূলচেরা বিশ্লেষণ। তা করতে গিয়ে ভারত-পাকিস্তানের সাবেক গ্রেট ক্রিকেটাররা বলছেন, ‘বর্তমানে সীমিত ওভারের ম্যাচে মুস্তাফিজই বিশ্বসেরা বোলার।’

পাকিস্তানের রমিজ রাজার প্রতি বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের খুব বেশি শ্রদ্ধাবোধ কাজ করে না! কারণটা হলো, রমিজ বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করেছেন, হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করেছেন। সেই রমিজ রাজাও কিন্তু মেনে নিচ্ছেন মুস্তাফিজের শ্রেষ্ঠত্ব। তার মতে, ‘জেমস অ্যান্ডারসন-ডেল স্টেইনদের মতো বর্তমানে অনেক আলোচিত বোলার রয়েছেন। কিন্তু বর্তমান সময়ে মুস্তাফিজই সীমিত ওভার ক্রিকেটের সেরা বোলার। আমাদের (পাকিস্তানি) পেসার ওয়াহাব রিয়াজও ভাল। কিন্তু সে টেস্টের ক্ষেত্রে বেশি উজ্জ্বল।’

জাতীয় দলের জার্সিতে বিশ্বে অনেক বোলারই নাম কুড়িয়েছেন। কিন্তু আইপিএলে খেলতে এসে নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি তারা। তবে বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজ জাতীয় দল ও আইপিএল দুই জায়গাতেই একইরকম সাফল্য পাচ্ছেন। রমিজ রাজা সেই বিষয়টি নিয়ে আলোকপাত করতে গিয়ে মুস্তাফিজকে সীমিত ফরম্যাটের ক্রিকেটের সেরা বোলার হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

এদিকে, ভারতে সাবেক তারকা পেসার ও বর্তমানে আফগানিস্তান জাতীয় দলের বোলিং কোচ মনোজ প্রভাকরের মতে, ‘বর্তমানে মুস্তাফিজই যে সেরা বোলার এই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। একটা সময় শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা ছিলেন যিনি দুর্দান্ত সব ইয়র্কার দিতে পারতেন। বর্তমানে এই বিষয়ে মুস্তাফিজ সেরা। সে কাটারগুলো দুরন্ত গতিতে ছুঁড়তে পারে এবং তার বোলিংয়ে আরও অনেক বৈচিত্র্য রয়েছে। যা সে একই ভঙ্গিমায সফলভাবে ডেলিভারি দিতে পারে।’

প্রভাকর আরও বলেছেন, ‘কখনো কখনো বলের সুইং নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে একজন পেসারকে ক্রস সিম বা বলের সেলাই আড়াআড়িভাবে ধরে বল করতে হয়। কিন্তু মুস্তাফিজের এসবের প্রয়োজন পড়ে না।’

ভারতের জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক কুষ্ণামাচারি শ্রীকান্তও মুস্তাফিজ বন্দনায় যোগ দিয়েছেন। তবে তিনি মনে করেন, সবাইকে ছাপিয়ে শ্রেষ্ঠত্বের আসন নিজের করে নিতে চাইলে মুস্তাফিজকে অবশ্যই সামনের দিনগুলোতেও একই রকম সাফল্য পেতে হবে। শ্রীকান্তের মতে, ‘অবশ্যই বর্তমানে মুস্তাফিজের চেয়ে ভালো বোলার খুব বেশি নেই বিশ্ব ক্রিকেটে।’






মন্তব্য চালু নেই