মেইন ম্যেনু

ভুল করে কনডম খেয়ে বিপত্তি

পেট ব্যথার জন্য চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়েছিলেন ২৬ বছর বয়সি এক নারী। ওই নারী চিকিৎসকদের জানান কয়েকদিন ধরে তিনি খাবার হজম করতে পারছেন না এবং জ্বর অনুভব করছেন; সঙ্গে পেট ব্যথা তো রয়েছেই।

কথা শুনে চিকিৎসক সঙ্গে সঙ্গে তার পেট স্ক্যান করান। এতে পেটের মধ্যে ফ্লুইড জাতীয় পদার্থ দেখতে পান তারা। চিকিৎসকরা সিদ্ধান্তে আসেন, তার অ্যাপেনডিক্স হয়েছে। তারা দ্রুত অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন যাতে অ্যাপেনডিক্স ফেটে যাওয়ার আগেই তা অপসারণ করা যায়। কিন্তু অপারেশনের পর সবার চক্ষু চড়কগাছ! কারণ অ্যাপেনডিক্সের ভেতরে তারা এক টুকরো কনডম আবিষ্কার করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে ক্যামেরুনের একটি হাসপাতালে। ডাক্তাররা মনে করছেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের ইতিহাসে এ রকম ঘটনা এটিই প্রথম। তারা জার্নাল অব মেডিক্যাল কেস রিপোর্টস-এ ঘটনাটির বর্ণনা দেন এভাবে : ‘আমরা অ্যাপেনডিক্স কেটে ফেলি এবং তার মধ্যে একটি রাবারের টুকরো পাই যা অনেকটা কনডমের মতো দেখতে।’

এ প্রসঙ্গে ওই নারী জানান, দুই সপ্তাহ আগে তিনি ভুলে একটি কনডম গিলে ফেলেছিলেন। ওই ঘটনার পর তিনি চিকিৎসকের শরণাপন্ন হননি। ঘটনার পাঁচ দিন পর কনডমটি বের করা হয়। তিনি এর আগে ভাবতেই পারেননি তার রোগের কারণ এই কনডম!

চিকিৎসকরা মনে করছেন, কনডমটি গিলে ফেলার পর তা টুকরো হয়ে কিছু বের হয়ে যায়, কিছু অংশ অ্যাপেনডিক্সে থেকে যায়। তবে অ্যাপেনডিক্সে কনডম পাওয়ার ঘটনা প্রথম হলেও এর আগে সেখানে স্ক্রু, ফলের বিচি, পাথর, টুথপিক, সুঁচ, বুলেট, দাঁতসহ বিভিন্ন জিনিস পেয়েছেন চিকিৎসকরা।






মন্তব্য চালু নেই