মেইন ম্যেনু

ভুল চিকিৎসায় ছাত্রের মৃত্যু : হাসপাতাল ভাঙচুর

সিরাজুল ইসলাম শিশির, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: এলার্জিজনিত কারণে সিরাজগঞ্জের মেডিনোভা হাসপাতাল কমপ্লেক্সে ভর্তি পর ভুল চিকিৎসায় খায়রুল ইসলাম (১৪) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে শহরে দরগা রোডস্থ মেডিনোভা হাসপাতাল কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রের স্বজনরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে হাসপাতাল ভাংচুর করেছে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন। মৃত খায়রুল শহরের রহমতগঞ্জ মহল্লার মনোয়ারুল ইসলামের ছেলে ও সবুজ কানন স্কুল এন্ড কলেজের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র।

খায়রুলের বাবা মনোয়ারুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এলার্জিজনিত কারণে খায়রুলকে মেডিনোভা হাসপাতাল কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর ইন্টার্নি ডা. পিয়াস তার চিকিৎসা সেবা দেয়। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে তার ছেলে মারা যাওয়ার পর চিকিৎসকরা রেফার্ড করেন।

সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও মেডিনোভা হাসপাতাল কমপ্লেক্সের পরিচালক ডা. আকরামুজ্জামান জানান, ডা. নিত্যরঞ্জন পালের তত্বাবধানে ওই খায়রুলকে ভর্তি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে ইন্টার্নি ডা. পিয়াস তার চিকিৎসা সেবা শুরু করে। একপর্যায়ে রোগীটির অবস্থা খারাপ হলে তাকে অন্যত্র রেফার্ড করা হয়। এ অবস্থায় রোগীর মৃত্যু হওয়ায় রোগীর স্বজনরা বিক্ষুব্ধ হয়ে হাসপাতাল ভাংচুর ও স্টাফদের মারপিট করে।

হাসপাতালে অপর পরিচালক ও সার্জন ডা. নিত্যরঞ্জন পাল জানান, রোগীটি আমার তত্ত্বাবধানে ভর্তি করা হলেও ইন্টার্নি চিকিৎসক পিয়াস আমার সাথে কোন আলোচনা না করেই তার চিকিৎসা শুরু করেন। ধারণা করা হচ্ছে, আঘাতজনিত কারণে মস্তিস্কের ভেতরে রক্তক্ষরণ হলেও রোগীর স্বজন ও ইন্টার্নি চিকিৎসক বিষয়টি বুঝতে পারেনি। অবস্থার অবনতি হলে তাকে রেফার্ড করার পর আমাকে জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইন্টারনি চিকিৎসক পিয়াসের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল ইসলাম। জানান, হাসপাতালে রোগী মারা যাওয়ায় রোগীর স্বজন ও বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী হাসপাতাল ভাংচুর করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। তবে কেউ অভিযোগ দেয়নি।






মন্তব্য চালু নেই