মেইন ম্যেনু

ভূতের অত্যাচার সহ্য না করতে পেরে অবশেষে বাড়ি বিক্রি করলেন বলিউড অভিনেতা…

অবশেষে ভূতের অত্যাচারে প্রয়াত বলিউড তারকা রাজেশ খান্নার মুম্বাইয়ের বাড়িটি বিক্রি করে দেয়া হল। লোকমুখে শোনা যায়, ষাটের দশক থেকেই এ বাড়িতে ভূতের উপদ্রপ ছিলো।

তাছাড়া রাজেশ খান্নার শেষ জীবনের সঙ্গী অনিতা আদভানিও বাড়িটির মালিকানা দাবি করে আসছিলেন। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই বাড়িটি বিক্রি করে দিয়েছে রাজেশ খান্নার দুই মেয়ে টুইংকেল ও রিংকি।

২০১২ সালে রাজেশ খান্নার মৃত্যুর পর তার দুই মেয়ে টুইংকেল ও রিংকি এই বাড়িতে বাবার নামে সংগ্রহশালা গড়ার ঘোষণা দেন। কিন্তু হঠাৎ করেই রাজেশ খান্নার শেষ জীবনের সঙ্গী অনিতা আদভানি এসে বাড়ির মালিকানা দাবি করে বসেন। তারপরও এই বাড়িতেই সংগ্রহশালা গড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলো তার সন্তানেরা।

কিন্তু এসময় আবারো সমস্যা সৃষ্টি করে সেই ভূত। বিশেষ করে মাঝরাতে বাড়িটি থেকে এখনও বিভিন্ন ধরনের আওয়াজ শোনা যায়। তাই অনেকটা গোপনেই বাবার স্মৃতি বিজড়িত বাড়িটি বিক্রি করে দিয়েছে তারা।

এদিকে বাড়িটির বাজার মূল্য প্রায় ৩শ কোটি রুপি, কিন্তু শিল্পপতি শশী কিরণ শেঠি বাড়িটি কিনেছেন মাত্র ৯৩ কোটি রুপিতে। কারণ বাড়িতে নাকি ভূতের উৎপাত আছে। এ বিষয়ে স্থানীয় লোকজন জানান, ষাটের দশকে এটি একটি দোতলা ভাঙাচোরা বাংলো ছিল। লোকে এটাকে ভূতের বাংলো বলেই ডাকতো। কারণ বাড়িটির বেজমেন্ট থেকে প্রায়ই অদ্ভূত আওয়াজ শোনা যেত।

সে সময় রাজেস খান্নার ক্যারিয়ারের পালে হাওয়া লেগেছে মাত্র। কয়েকদিনের মধ্যেই ‘কানুন’ চলচ্চিত্রটির শ্যুটিং শুরু হবে। অগত্যা পরিচালক বি আর চোপড়ার কাছ থেকে অভিনয় বাবদ অগ্রিম ৯০ হাজার টাকা নিলেন। যার মধ্যে ৬০ হাজার টাকা দিয়ে সেই ভূতের বাড়িটি।






মন্তব্য চালু নেই