মেইন ম্যেনু

ভূমিকম্প থেকে বাঁচাবে যে খাট (ভিডিও)

ভূমিকম্পের সময় সাধারণ মানুষকে রক্ষা করতে বিশেষ এক ধরনের খাট আবিষ্কার করেছেন রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা। ঘুমন্ত মানুষকে ভূমিকম্পের কবল থেকে রক্ষা করতে পারবে এটি।

সামান্য একটু উঁচু হলেও এটি দেখতে আর পাঁচটি সাধারণ খাটের মতোই। এটির ভেতরের দিকটা অনেকটা একটি কফিনের মতো। ভূমিকম্পের সময় এর ওপর ঘুমন্ত ব্যক্তি স্বয়ংক্রিয়ভাবে এটির ভেতরে চলে যাবে এবং খাটটি ভাজ হয়ে যাবে।

শক্ত ইস্পাতের তৈরি এই খাটটির ওপরের দিকটা একটি দরজার মতো। ভূমিকম্পে ভবন ধসে পড়ার আগেই খাটির ওপরে থাকা ব্যক্তি এর ভেতরে চলে যাবে এবং দরজাটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে।

বাক্সের মতো এই খাটটির ভেতরে থাকবে প্রয়োজনীয় খাবার, পানি এবং প্রাথমিক চিকিৎসার সরঞ্জাম ও গ্যাস নিরোধক মুখোশ, যাতে ভূমিকম্পের শিকার ব্যক্তিকে উদ্ধার করা পর্যন্ত সে বেঁচে থাকতে পারে।

খাটটির একটি ভিডিওতে দেখা যায়, এটি বিভিন্ন ডিজাইন এবং বিভিন্ন আকারের হতে পারে। তবে সবগুলো একইভাবে কাজ করে। হঠাৎ করে খাটের ওপরের বিছানাটি এর ভেতরে চলে যায় এবং উপরের দিকটা বন্ধ হয়ে যায়।

বন্ধ হওয়ার পর যেমন দেখাবে খাটটি

বন্ধ হওয়ার পর যেমন দেখাবে খাটটি

ব্রিটিশ গণমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট জানায়, এটা খুবই অসাধারণ একটি ধারণা। ভূমিকম্প একটি ব্যাপক বিব্ধংসী প্রাকৃতিক দূর্যোগ এবং এর কোনো ভবিষ্যৎবাণী করা যায় না। তাই ঘুমন্ত মানুষকে রক্ষা করতে এটি কার্যকর হতে পারে।

তবে সামান্য কিছু সমস্যাও আছে এতে। খাট বন্ধ হয়ে যাওয়ার সময় কোনো ব্যক্তির পা এর পাশের ইস্পাতের সাথে আটকে গেলে কী হবে- তা ভিডিওতে বলা হয়নি। অথবা দূর্ঘটনাবশত এটি কাজ না করলে-কী হবে তাও বলা হয়নি।

খাটটি তৈরি করেছেন রুশ উদ্ভাবক দাহির সিমেনভ। এর আগে ২০১২ সালে একইরকম একটি খাট পরীক্ষা করেছিল চীন। তবে সেটি ছিল সিমনেভের তৈরি করা খাটটির চেয়ে অনেক ধীরগতির। এছাড়া গত বছরের মে মাসে প্রায় এক মেট্রিক টন ওজন বহনে সক্ষম এক ধরনের স্কুল ডেস্ক তৈরি করেছিল ইসরায়েল।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই