মেইন ম্যেনু

ভূমি দস্যুদের অত্যাচারে অসহায় এক পরিবার: থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা

ভূমি দস্যুদের অত্যাচারে অসহায় দিনযাপন করছেন টাঙ্গাইল ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীন্দর গ্রামের হত দরিদ্র এক পরিবার। জমি জবরদখল করে বাড়ি ছাড়া করায় আফছার আলীর এ পরিবারটি বর্তমানে অসহায় জীবনযাপন করছে।

এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু আমজাদ আলী গংদের কাছ থেকে জবর দখল করা জমি উদ্ধার চেয়ে স্থানীয় এমপির কাছে আবেদন করেছে পরিবারটি। স্থানীয় সমাজপতিরা শালিসি বৈঠকের মাধ্যমে আমজাদের বাহামভুক্ত লোকদের জবরদখলকৃত জমি ফেরত দিতে বললেও তা ফেরত দিচ্ছে না এই ভূমি দস্যুরা। এ ব্যাপারে ঘাটাইল থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে।

আফছার আলীর অভিযোগ, ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীন্দর মৌজার বিভিন্ন দাগের নিজ দখলীয় এক একর ৫৪ শতাংশ ভূমি প্রভাব খাটিয়ে পেশী শক্তির বলে উপজেলার লক্ষিন্দর গ্রামের আমজাদ গংদের বাহামভুক্ত লোকেরা জবরদখল করে নিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। আফছার মিয়া বাধ্য হয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গার্মেন্টসে চাকরি নেন। সম্পতি অসহায় পরিবারটি বাড়ি ফিরে আসলেও ভূমি দস্যুদের অত্যাচারে বাড়িতে থাকতে পারছেন না। সম্পতি ভূমি দস্যুরা আফছার ও তার ভাতিজা দুলালকে মারপিট করে আহত করে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে আফছার আলীর পরিবার জানান। মামলা থেকে বাঁচতে আফছারের পরিবার পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

এ বিষয়টি নিয়ে ৮ বার গ্রাম্য শালিশ বসে সমাজপতিরা জমির কাগজপত্র দেখে আফছার উদ্দিনের পক্ষে রায় দেয় মীমাংসার উদ্যোগ নেয় তারপরও কোনো সুরাহা না হওয়ায় নবম বার পুনরায় মীমাংসার জন্য গ্রাম্য শালিস বৈঠকের দিন আফছার উদ্দিন ও তার ভাতিজা মোঃ দুলালকে পিটিয়ে মারাতক আহত করে। এ ঘটনায় পতিপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে উল্টো মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

আফছার উদ্দিন জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে টাঙ্গাইল আদালতে মামলা করলেও প্রতিপক্ষ জোরপূর্বক মামলা তুলে নিতে বাথ্য করে। পরে আপোসের কথা বললে সে মামলাটি তুলে নেয়। বর্তমানে আফছারের পরিবার পতিপক্ষের অত্যাচার মামলা থেকে বাঁচতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। অসহায় আফছারের পরিবারটি সুষ্ঠ বিচারের জন্য ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চেয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই