মেইন ম্যেনু

‘ভেবেছিলাম ওরা আমাকে ধর্ষণ করবে’

প্যারিসের হোটেলে জিম্মিদশার বিষয়ে মুখ খুলেছেন জনপ্রিয় টিভি উপস্থাপিকা কিম কার্দাশিয়ান।

তিনি জানিয়েছেন, ধরেই নিয়েছিলেন মুখোশধারীরা তাকে ধর্ষণ করতে চলেছেন।

প্যারিসের লাক্সারি-অ্যাপার্টমেন্টে রোববার কয়েক লাখ ডলারের গয়না ডাকাতি হওয়ার মুহূর্তে এমন ভাবনা এসেছিল কিম কার্দাশিয়ানের।

পুলিশের পোশাকে পাঁচজন দুষ্কৃতী ওই হোটেলে এসে প্রথমে কিমের হাত-পা বাঁধেন। এরপর গানপয়েন্টে রেখে তাকে বাথটাবে ফেলে দেয়া হয়।

পরে ৩৫ বছর বয়সী এই তারকা দুষ্কৃতীদের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে সোজা ব্যালকনিতে গিয়ে চিৎকার শুরু করেন।

সে সময় দৃষ্কৃতীরা ফরাসিতে কথা বলছিলেন, যা শুনে কিমের ধারণা হয়, তাকে ধর্ষণ করার কথা বলছেন তারা।

ওই সময় দৃষ্কৃতীরা নাকি ‘রিং রিং’ বলে কিছু একটা বোঝানোর চেষ্টা করছিল। কিম পরে পুলিশকে জানান, ভয় পেয়ে তিনি বলে দেন স্বামী কেনি ওয়েস্টের দেয়া এমারেল্ড রিং কোথায় রেখেছেন তিনি।

এক পর্যায়ে কিম চেষ্টা করেন ফোন করে পুলিশ ডাকতে। তবে ফোন কেড়ে নেয় দুষ্কৃতীরা।

খবর পেয়ে নিউইয়র্কে কনসার্ট মঞ্চ থেকে তড়িঘড়ি নেমে বেরিয়ে যান কিমের স্বামী সঙ্গীতশিল্পী কেনি ওয়েস্ট।

কার্দাশিয়ানের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, এ ঘটনায় কিম ভীষণ ভয় পেয়েছেন, তবে অক্ষত আছেন তিনি। কোনো ক্ষতি হয়নি তার।

প্যারিস ফ্যাশন সপ্তাহে অংশ নিতে ক’দিন আগে নিজের মা এবং বোনকে নিয়ে ফ্রান্সে গেছেন কিম।

গত সপ্তাহেই তার ওপর ঝাপিয়ে পড়ে তাকে চুম্বনের চেষ্টা করে একজন ভক্ত। যদিও কিমের বডিগার্ডের হস্তক্ষেপে সে যাত্রা বেঁচে যান কিম।






মন্তব্য চালু নেই