মেইন ম্যেনু

ভোলার লালমোহনে জেলেদের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ, প্রকৃত জেলেরা বঞ্চিত

ভোলার লালমোহনে জেলেদের চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পশ্চিম চর উমেদ ইউনিয়ন পরিষদে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় সাধারণ জেলেদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ বিজার করছে।জানা গেছে, উপজেলার পশ্চিম চর উমেদ ইউনিয়নে নামে বেনামে প্রায় ৮ শত পরিচয় পত্রধারী জেলে রয়েছে। এসকল জেলেদের মাঝে রোববার সকালে ইউনিয়ন পরিষদের সিপিসি ও সংরক্ষিত মেম্বার শিলা ও ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মহাসিনের নেতৃত্বে চাল বিতরণ করা হয়। বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও নিম্মমানের চাল হওয়া জেলের ক্ষোভের শেষ নেই। বিতরণে প্রকৃত কার্ডধারী জেলের বঞ্চিত করে বহিরাগত লোকদের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়েছে বলে ও অভিযোগ রয়েছে। প্রকৃত কার্ডধারী জেলে নুরুল ইসলাম মাঝি, তাহের মাঝি, আঃ মোতালেব, মোস্তফা, আইয়ব আলী ও আলমগী সহ একাধিক জেলে জানান, আমরা প্রকৃত জেলে, আমাদের কার্ড থাকা সত্ত্বেও আমাদের চাল না দিয়ে যারা জেলে নয়,তাদেরকে টিকেট দিয়ে চাল দেওয়া হচ্ছে। আজ যাদেরকে চাল দেওয়া হচ্ছে তারা অধিকাংশ লোক কৃষি কাজ করে ও বিভিন্ন ব্যবসার সাথে জরীত। চাল পাওয়া সফিজল, কাশেম সহ কয়েক জন জেলে জানান, আমাদের জন্য সরকারি ভাবে প্রতি মাসে ৩৬ কেজি করে ৮ মাসের চাল এসেছে। এখন ২ মাসের ৭২ কেজি চাল কাগজ পত্রে বিতরণের কথা থাকলে বিতরণ করা হচ্ছে মাত্র ২৫ থেকে ৩০ কেজি করে। এসকল চাল তাও আবার নিম্মমানের। সুবিধা বঞ্চিত জেলে আঃ গণি, আব্দুর রব, আলী হোসেন জানান, আজা আমাদের চাল দেওয়ার কথা ছিল? তাই আমরা এসেছি,এখন চাল না নিয়ে ফিরে যাচ্ছি। এই চালের জন্য এখানে না এসে আজ শ্রমিকের কাজ করলে ৩শ টাকা পেতাম। এদের মত অনেক জেলে চাল না ফেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বাড়ি চলে যান। এব্যাপারে ইউনিয়ন পরিষদের সিপিসি ও সংরক্ষিত মেম্বার শিলা ও ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মহাসিনের মোবাইল ফোনে বারবার চেষ্টা করেও তাদেরকে পাওয়া যায় নি।






মন্তব্য চালু নেই