মেইন ম্যেনু

ভোলায় ধনিয়া ইউনিয়ানে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ মূলক নাটক“ মুক্তি”অনুষ্ঠিত

“বাল্য বিবাহ বন্ধ করি, সুখি সুন্দর সমাজ গড়ি” এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভোলার ধনিয়া ইউনিয়ানে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ মূলক নাটক “মুক্তি” অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার বিকালে ধনিয়া ইউনিয়ানের ৪নং ওয়ার্ডের কানাই নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ্ওে ২নং ওয়ার্ডের খন্দকার বাড়ী সরকারি বিদ্যালয়ের মাঠে এই নাটক পরিবেশিত হয়।কোস্ট ট্রাস্টের বাস্তবায়নে ইউনিসেফ বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় ইন্টারএ্যাকটিভ পপুলার থিয়েটার (আইপিটি শো) এর নাটক মুক্তি পরিবেশন করেন স্বপ্নীল শিশু কিশোর সাংস্কৃতিক সংগঠন। নাটকটিতে বাল্য বিবাহ বন্ধে অভিভাবক ও সমাজের ভিবিন্ন শ্রেণীর লোকজনকে সচেতন করার জন্য এই নাটক বিভিন্ন বার্তা তুলে ধরা হয়।

নাটকে বলা হয় ১৯২৯ সালের বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন অনুযায়ী ছেলেদের ২১ বছর এবং মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮ বছর বয়সের চেয়ে কম বয়সে বিয়ে দিলে তাকে বাল্য বিবাহ বলে । কিন্তুু সেই আইন ভঙ্গ করে সমাজে অহরহোর বাল্য বিবাহ হচ্ছে। সমাজে বাল্য বিবাহর ফলে শিশুদের দাম্পত্য জীবন সম্পর্কে পরিপূর্ন ধারনা থাকেনা, প্রসবের সময় মা ও মাতৃমিত্যুার সংখ্যা বেড়ে যায়।শিশু কম ওজনের জন্ম গ্রহন করে,মা ও শিশুর মারাতœক ঝুঁকি দেখা দেয়,মেয়েদের শরীরে ভেঙ্গে যায়, ফলে বহু বিবাহ, বিবাহ বিচ্ছেদ সহ সংসারে নানা অশান্তির হয় বলে জানা যায়।

১৮ বছরের কম বয়সী শিশুরা সন্তান ধারন,জন্মদান ও লালন-পালনের জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে তৈরি থাকেনা। কিশোরী বয়সে বিয়ে হলে নানা রকম স্থাস্থঝুঁকিতে থাকে। কিশোরী মা অসুস্থ শিশুরা জন্ম দেয়, এতে শিশুর মৃত্যুর অশঙ্কা থাকে।এমনকি মায়ের মৃত্যুও হতে পারে।তাই বাল্য বিবাহ বন্ধে সবাইকে সচেতন হতে হবে। এই নাটকে অভিনয় করেন ইভান,ডেভিট,ফাহিম,হাসান,মিম,শিপু,নোয়াব,প্রদীপ, অর্নব,রাকিব,সুরভী,নৈমিতা,বর্ষা সহ আরো অনেকে।






মন্তব্য চালু নেই