মেইন ম্যেনু

মক্কায় ক্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ২৫ জন বাংলাদেশি

মক্কায় আল হারাম শরীফ মসজিদে ক্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি ও ইরানি বলে দাবি করেছে সৌদি আরবের সরকারি সংবাদ মাধ্যম। যার মধ্যে ২৫ জন বাংলাদেশি নাগরিক রয়েছেন।

দেশটির সরকারি সংবাদ মাধ্যম আল-আরাবিয়া নিউজ আজ রোববার এ তথ্য জানিয়েছে। তবে এটি অস্বীকার করছেন জেদ্দা কনস্যুলেটের কনসাল (হজ) আসাদুজ্জামান।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই দুর্ঘটনায় ১০৭ জন মারা যান। আহত হন ২ শতাধিক। ওই সময় কেবল ৪০ বাংলাদেশি আহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল।

হতাহতের ব্যাপারে প্রাথমিক রিপোর্ট যাচাইয়ের পর সরকারি সংবাদ মাধ্যম আল-আরাবিয়া জানায়, নিহতদের মধ্যে ১৫ জন পাকিস্তানি, ২৩ জন মিশরের, ভারতের ১০, ইরানের ২৫, মালয়েশিয়ার ৬, বাংলাদেশের ২৫ জন রয়েছে। এছাড়া আলজেরিয়া ও আফগানিস্তানের একজন করে নিহত হয়েছেন। তবে তারা সবাই হজযাত্রী কি না তা জানানো হয়নি।

2015_09_13_13_48_18_lvQl0ZHYAoCYHwuz41VIysXUteNNGp_originalআল-আরাবিয়ায় প্রকাশিত সেই নিউজের একটি অংশ

জেদ্দা কনস্যুলেটের কনসাল (হজ) আসাদুজ্জামান অবশ্য জানান, আহতদের মধ্যে অন্তত ৪০ জন বাংলদেশি হজযাত্রী রয়েছেন। তারাও এখন আশঙ্কামুক্ত। এমনকি আশঙ্কাজনক অবস্থায় থাকা শরীয়তপুরে ভেদরগঞ্জ উপজেলার চান চৌকিদারও এখন সুস্থ। তাকেও হাসপাতাল থেকে হোটেলে নেয়া হয়েছে।

সৌদি বাদশা সালমান এ ঘটনায় শনিবার গভীর শোক প্রকাশ করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর তিনি বলেন, ‘কিভাবে ক্রেনটি ভেঙে পড়লো তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পরে বাদশা আহতদের দেখতে হাসপাতালে যান।’

রোববার জানানো হয়েছে প্রবল বাতাসের কারণেই ক্রেনটি ভেঙে পড়েছিল মসজিদের ওপর। ওই সময় মসজিদের তিনতলা মুসল্লিতে ঠাসা ছিল। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই দুর্ঘটনা আগামী সপ্তায় অনুষ্ঠেয় হজে কোনো প্রভাব ফেলবে না। হজ অনুষ্ঠানের সব প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে।






মন্তব্য চালু নেই